ফের বেড়েছে মূল্যস্ফীতি

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৭, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মূল্যস্ফীতি কমার প্রবণতায় গত বছরের সমাপ্তি হলেও নতুন বছরের শুরুর মাসেই তা আবার বেড়েছে।
চলতি বছরের জানুয়ারিতে পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে সাধারণ মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৫ দশমিক ১৫ শতাংশ, যা আগের মাসে ছিল ৫ দশমিক ০৩ শতাংশ।
অর্থাৎ ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে যে পণ্য বা সেবার জন্য ১০০ টাকা খরচ করতে হত, ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে সেই পণ্য বা সেবার জন্য ১০৫ টাকা ১৫ পয়সা বেশি খরচ করতে হয়েছে।
মূল্যস্ফীতি বাড়ার পেছনে মোটা চালের দাম বৃদ্ধি ও শিক্ষা ব্যয়কে কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।
মঙ্গলবার শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভা পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) হালনাগাদ তথ্য সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন তিনি।
মুস্তফা কামাল বলেন, “দেশে প্রতিবছর জানুয়ারি আর জুলাই মাসে চালের দাম কিছুটা বেড়ে যায়। তারই ধারাবাহিকতায় জানুয়ারি মাসে মোটা চালের দাম কিছুটা বেড়েছে।”
এর সঙ্গে বছরের প্রথম মাসে বই-খাতাসহ আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র কেনাসহ শিক্ষার বাড়তি ব্যয়ের চাপে জানুয়ারিতে মূল্যস্ফীতি কিছুটা বেড়েছে বলে যুক্তি তুলে ধরেন তিনি।
চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে গড় মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৮ শতাংশে নামিয়ে আনার লক্ষ্য ধরেছে সরকার।
পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, জানুয়ারিতে খাদ্য খাতে সাধারণ মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৫৩ শতাংশ, যা ডিসেম্বরে ছিল ৫ দশমিক ৩৮ ভাগ। এই মাসে খাদ্যবহিভূর্ত খাতে মূল্যস্ফীতি হয় ৩ দশমিক ১০ ভাগ, যা তার আগের মাসে ছিল ৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ। জানুয়ারিতে গ্রামাঞ্চলে সাধারণ মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৪ দশমিক ৯২ শতাংশ, যা ডিসেম্বরে ছিল ৪ দশমিক ৪৬ শতাংশ।
এই মাসে শহরে সাধারণ মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৫ দশমিক ৫৭ শতাংশ, যা আগের মাসে ৬ দশমিক ০৭ শতাংশ।- বিডিনিউজ