বগুড়ায় নির্বাচনী প্রচারণা শেষ ১৯ মে, শেষ প্রহরে প্রচারণা বেড়েছে দ্বিগুন

আপডেট: মে ১৮, ২০২৪, ৮:২৫ অপরাহ্ণ


আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি:


আগামী ২১ মে বগুড়ার আদমদীঘি ও দুপচাঁচিয়ায় ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের প্রচারণা শেষ হবে ১৯ তারিখ রাত ১২ টায়। নির্বাচনের প্রচারণার শেষ সময় ঘনিয়ে আসায় প্রার্থীরা প্রচারণা বাড়িয়ে দ্বিগুন ভাবে। লিফলেট হাতে সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যনন্ত চলছে প্রচার-প্রচারণা। প্রার্থীদের পরিবারের সদস্যরাও নেমেছেন প্রচারণায়। লিফলেট হাতে সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত ভোট প্রার্থনা করছেন প্রার্থীরা ও পরিবারের সদস্যরা। ইতোমধ্যে পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে পাড়া-মহল্লাসহ প্রতিটি এলাকা। চা দোকানে ঝড় উঠছে নির্বাচনি আলোচনায়।

আদমদীঘি, দুপচাঁচিয়া উপজেলাতে বর্তমানদের বিপক্ষে নতুন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রত্যাশীরা শক্ত প্রতিদ্বদ্বিতা গড়ে তুলে চ্যালেঞ্জ তৈরি করেছেন। এই দুই উপজেলায়ই এখন পুারতনদের সঙ্গে নতুন চেয়ারম্যান প্রার্থীদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস মিলছে। সব কটিতেই দ্বিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনাই বেশি।

আদমদীঘিতে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বদ্বিতা করছেন আদমদীঘি-দুপচাঁচিয়া এলাকার সংসদ সদস্যের পিতা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খান রাজু (আনারস প্রতীক) তিনি এর আগেও উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেছেন। পাশাপাশি সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের জন্য পদত্যাগ করতে হয়েছে তাঁকে। এছাড়া উপজেলা শ্রমিকলীগের সাবেক আহবায়ক রাশেদুল ইসলাম রাজা মোটরসাইকেল প্রতীক) এবং বিএনপি সমর্থক প্রভাষক তোফায়েল হোসেন লিটন (ঘোড়া প্রতীক)।

যদিও বিএনপি ভোট বর্জনের বিভিন্ন কার্যক্রম চালাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে বিএনপি সমর্থক এই লিটন কতটুকু ফল বা সুফল পাবে তা ভোট গণনার পর দেখার বিষয়। দুপচাঁচিয়া উপজেলায় বর্তমান চেয়ারম্যান ফজলুল হক প্রামাণিকের সঙ্গে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ¦ন্দ্বিতা করছেন আহম্মেদুর রহমান বিপ্লব ও মাহবুবা নাসরিন।

উপজেলাগুলোর বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজনের সঙ্গে কথা বলে দেখা গেছে সব কটিতে বর্তমান চেয়ারম্যানের সঙ্গে নতুনদের প্রতিদ্বন্দ্বিতার কথাই ভোটের মাঠে বেশি। আদমদীঘিতে প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খান রাজু। তিনি উপজেলা আওয়ামীলীগের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন। তাই এলাকায় তার দলীয় একটা শক্ত অবস্থান আছে। দলীয় নেতাকর্মীর বড় একটা অংশ তার পক্ষেই কাজ করছে। সেদিক থেকে তার অবস্থান ভালোও হতে পারে।

আবার পারিবারিক বলয়ের কথা তুলে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রাশেদুল ইসলাম রাজা ও তার সর্মথকরা ভোটারদের বাড়তি নজর কাড়ার চেষ্টা করছেন। আর সেই জন্য দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর পক্ষে বিপক্ষে ভোটের মাঠে রয়েছেন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। যার ফলে দুই প্রার্থীর মধ্যেই শক্ত লড়াইয়ের কথা বলছেন এলাকার লোকজন।
দুপচাঁচিয়া উপজেলায় বর্তমান চেয়ারম্যান ফজুলুল হকের বিপক্ষে সাধারণ লোকদের নিয়ে ভোটের মাঠের তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বী গড়েছেন যুবলীগ নেতা আহম্মেদুর রহমান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version