বড়াইগ্রামে শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট: জুন ২৭, ২০২৪, ৭:৪৭ অপরাহ্ণ


বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি:


নাটোরের বড়াইগ্রামে ইদুল আজহার দিন স্কুল শিক্ষককে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টায় জড়িতদের বিচারের দাবিতে ক্লাস বর্জন, মানববন্ধন ও স্মারকলিপি পেশ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকাল সাড়ে ১১ টায় দিকে নাটোর-পাবনা মহাসড়কে বনপাড়া পৌর গেটের সামনে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ সমিতির এই কর্মসূচির আয়োজন করে। ঘণ্টাব্যাপি মানববন্ধনে উপজেলার ৪৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ১৭টি মাদরাসায় কর্মবিরতি দিয়ে হাজারো শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

এসময় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি ওয়াসেক আলী সোনারের সভাপতিত্বে শিক্ষকদের দাবির প্রতি একাত্মতা ঘোষণা করে ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী।

সমিতির সহ-সভাপতি শামসুর রহমান শাহীনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, উপজেলা চেয়ারম্যান প্রভাষক মোয়াজ্জেম হোসেন বাবলু, বনপাড়া পৌর মেয়র অধ্যাপক কেএম জাকির হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম ভূট্টু, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ মোহাম্মদ তুঘলক, জেলা পরিষদ সদস্য শাহ আলম মাস্টার, বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদাররেছিনের উপজেলা সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা মোয়াজ্জেম হোসেন ও বনপাড়া সেন্ট যোসেফ্স স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ফাদার ড. শংকর ডমিনিক গমেজ প্রমূখ। পরে শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল করে উপজেলা পরিষদে গিয়ে ইউএনও লায়লা জান্নাতুল ফেরদৌসের হাতে জড়িতদের গ্রেফতারসহ তিন দফা দাবিতে স্মারকলিপি দেন।

গোপাল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামসুর রহমান শাহীন বলেন, উপজেলার মশিন্দা গ্রামে দেড় বছর আগের একটি হত্যাকাণ্ডের জেরে গত ঈদের দিন বাদীপক্ষ আসামী পক্ষের জামিনে থাকা লোকজনের উপর হামলা করে। এ সময় তাদেরকে থামানোর চেষ্টা করলে হামলাকারীরা গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রাহাত আলমগীর হালিমকে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। বর্তমানে তিনি আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি আরো বলেন, এই ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় আগামী দিনে আরো বৃহত্তর কর্মসূচি দেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ