বড়াইগ্রামে ৩০ মিনিটে পুড়ে ছাই হলো ৫০ বিঘা পানের বরজ, ক্ষতি তিন কোটি টাকা

আপডেট: মে ১১, ২০২৪, ৭:৫৭ অপরাহ্ণ


বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি:


নাটোরের বড়াইগ্রামে বাগডোব ও কুমারখালি গ্রামের প্রায় ৫০ বিঘা জমিতে তৈরি পানের বরজ (পানের ক্ষেত) আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। শনিবার (১১ মে) দুপুর ১টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। বাঁশ ও পাটখড়ির তৈরি এই বৃহৎ পানের বরজ মাত্র ৩০ মিনিটে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে বলে জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা। এতে ৩৮ জন কৃষকের আনুমানিক ৩ কোটি টাকা ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে ধারণা করা হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষি হাবিবুর রহমান জানান, পানের বরজের পেছনে পশ্চিম দিকে নিজাম আলীর সীম ক্ষেতে সীমের গাছ আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করতে গিয়ে অসাবধানবশতঃ পাশের পানের বরজে আগুন লেগে যায়। প্রচন্ড তাপদহ ও এর সাথে হালকা বাতাস থাকায় দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

কৃষক জামাত আলী বলেন, পানের বরজে আগুন দেখে দৌড়ে আমি সহ আরও ২০/২৫ জন কৃষক ছুটে আসি। কিন্তু দীর্ঘদিনের খরা ও প্রচন্ড তাপদহের কারণে পানি শুকিয়ে গেছে। আশেপাশের কোন খাল বা নদী এমনকি টিউবওয়েল থেকেও পানি পাওয়া যায়নি। আগুন এতো দ্রুত ছড়িয়েছে যে মাত্র ৩০ মিনিটেই সব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

বড়াইগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মোমিন আলী জানান, আগুন লাগার পর বনপাড়া ফায়ার সার্ভিসকে জানানোর পর দুইটি ইউনিট এসে আগুন নেভায়। কিন্তু ততক্ষণে ৫০ বিঘার পান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শারমিন সুলতানা জানান, ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষিদের তালিকা প্রস্তুত করে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা হবে।
উপজেলা নির্বাহী-অফিসার লায়লা জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর তালিকা কাছে পেলে কৃষি অফিস সহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য দপ্তরের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা হবে।