বদলগাছীতে সাবমারসিবল পাইপ বসাতে গিয়ে ভূগর্ভে কয়লার সন্ধান

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৭, ১২:২৮ পূর্বাহ্ণ

এমদাদুল হক দুলু, বদলগাছী


নওগাঁর বদলগাছীতে মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাবমারসিবল পাইপ বসাতে কূপ খননকালে ভূগর্ভে উন্নতমানের কয়লার সন্ধান পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় জল্পনা কল্পনা চললেও সাধারণ গ্রামবাসীদের মধ্যে ভয়ভীতি বিরাজ করছে। তারা বিষয়টি গোপন রাখার চেষ্টা করছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা জনস্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাবমারসিবল পাইপ বরাদ্দ হয়। ১৬০ ফিট গভীরে পাইপ স্থাপন করার কথা ছিল। সম্প্রতি টিউবয়েল শ্রমিকরা ৭৫ ফিট খনন করার পর কয়লা বের হতে থাকে। ৭৫ থেকে ৮০ ফিট পর্যন্ত কয়লার স্তর পাওয়া যায়। তারপর আবারও মাটি বালি বের হয়। এছাড়া মির্জাপুর রাস্তার পশ্চিমপার্শ্বে হিন্দু মহল্লায় একজনের বাড়িতে টিউবয়েল বসাতে গিয়েও কয়লা বের হয়। কিন্তু তারা বিষয়টি গোপন করে রাখে। বড় পুকুরিয়া কয়লা খনি এলাকায় বাড়ি-ঘরে ফাটল ও দেবে যাওয়ার খবর পত্রপত্রিকায় দেখে মানুষ বিষয়টি গোপন রাখে বলে জানান স্থানীয়রা। আর এজন্যই মানুষের মাঝে ভীতির সঞ্চার হয়েছে।
পাইপ বসাতে কূপ খননের সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বিপুল চন্দ্র। তিনি জানান, ৭৫ থেকে ৮০ ফিট পর্যন্ত কয়লা কেটে পাইপ বসানো হয়েছে। জানতে চাইলে মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ জানান, পাইপ বসানোর সময় তিনি উপস্থিত ছিলেন না। তবে শুনেছেন কয়লা বের হয়েছে এবং কিছু কয়লার টুকরো উপরে উঠে আসে যা স্থানীয় লোকজন হাতে হাতে নিয়ে যায়।
এ বিষয়ে বালুভরা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আয়েন উদ্দীন জানান, প্রায় দুই মাস পূর্বে সেখানে পাইপ বসানো হয়েছে এবং তিনি শুনেছেন ১০/১২ ফিট কয়লার স্তর রয়েছে। তিনি নমুনা স্বরূপ এক টুকরো কয়লা ইউনিয়ন পরিষদে রেখে দিয়েছেন। পরিষদে সংরক্ষিত কয়লার টুকরো এলাকার কয়েকজন কয়লা ক্রেতা বিক্রেতাকে দেখালে তারা এটিকে খুবই উন্নতমানের কয়লা বলে জানিয়েছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ