বরেন্দ্র এলাকায় অপ্রচলিত ফল ও ওষুধি ফসল চাষাবাদ প্রকল্প পরিদর্শনে বিএমডিএ চেয়ারম্যান

আপডেট: জুন ১৮, ২০২২, ৯:২৪ অপরাহ্ণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:


বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন ২০২১-২০২২ অর্থবছরে বরেন্দ্র এলাকায় উচ্চ মূল্য অপ্রচলিত ও ওষুধি ফসল চাষাবাদ জনপ্রিয়করণ প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এর চেয়ারম্যান ও সাবেক সংসদ সদস্য বেগম আখতার জাহান।

শনিবার (১৮জুন) রাজশাহীর পবা উপজেলার বাকসারা বিল নেপালপাড়া, গোদাগাড়ী উপজেলার সারিংপুড়, বাজেউতপুর মোজা সহ বিভিন্ন এলাকায় প্রকল্প স্থান পরিদর্শন করেন তিনি। পরিদর্শনের সময় বিএমডিএ’র চেয়ারম্যান ও সাবেক সংসদ সদস্য বেগম আখতার জাহান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে সেভাবেই বাংলাদেশ কৃষি খাতকে এগিয়ে নিয়ে চলেছে বিশ্ব দরবারে।

তারই ধারাবাহিকতায় অপ্রচলিত ও ওষুধি ফসল উৎপাদনে গুরুত্ব দিয়ে আসছে সরকার। তিনি আরো বলেন,বাংলাদেশের আবহাওয়া ও জলবায়ু ফল চাষের জন্য খুবই উপযোগী। আমাদের দেশে দুই ধরনের ফল রয়েছে। একটি প্রচলিত, অন্যটি অপ্রচলিত। পুষ্টি ও ঔষধি গুণের দিক থেকে অপ্রচলিত ফলের গুরুত্ব অনেক বেশি। বাণিজ্যিক চাষাবাদ না হওয়ায় এ ফলগুলো হুমকির মুখে পড়ছে। এজন্য প্রকল্প কর্মসূচি হাতে নিয়েছে বিএমডিএ ।

যা বাস্তবায়ন করছে কৃষি মন্ত্রণালয়। আমরা এসব অপ্রচলিত ফল চাষ করে জমির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারি। পুষ্টি নিরাপত্তা, দারিদ্র্যবিমোচন, পরিবেশের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ এবং খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পে অপ্রচলিত ফলের অবদান অনেক বেশি। এছাড়া বিভিন্ন ধরনের প্রজাতির ফলদ, বনজ ও ওষুধ গাছ রোপন করা হয়েছে যা আমাদের অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণে অনেক সাহায্য করবে। সেই সাথে বরেন্দ্র অঞ্চলের সাধারণ মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলে আশাব্যক্ত করেন এবং প্রকল্পের সর্বাঙ্গীন সাফল্য কামনা করেন বিএমডিএ চেয়ারম্যান

এসময় উপস্থিত ছিলেন, বিএমডিএর নির্বাহী পরিচালক প্রকৌশলী আব্দুর রশীদ, প্রকল্প পরিচালক এটিএম রফিকুল ইসলাম, অপ্রচলিত ফল ও ওষুধি ফসল চাষাবাদ প্রকল্পের, নির্বাহী প্রকৌশলী জিন্নুরাইন খান, সহকারি প্রকৌশলী রফিকুল হাসান,উচ্চতার উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, পবা জোনের সহকারী প্রকৌশলী কামরুল আলম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী রাহাত পারভেজ , শরীফ উদ্দিন পাঠান, আবুল কাশেম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ২০২১-২০২২ অর্থবছরে উচ্চ মূল্য অপ্রচলিত ও ওষুধি ফসল চাষাবাদ জনপ্রিয়করণ প্রকল্প আওতায় বরেন্দ্র এলাকায় এখন হারিয়ে যাওয়া ফলও ফসল নতুন করে উৎপাদন করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে এ প্রকল্পের আওতায় উপকার পেয়েছেন ৬হাজার ৫৩০ জন, প্রশিক্ষনার্থী ৬০ জন, অপ্রচলিত ফল ও ঔষধি ফসলের চারাগাছ বিতরণ করা হয়েছে ৬হাজার ৫৩০ টি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ