বরেন্দ্র এলাকায় চাষ হচ্ছে দার্জেলিং কমলা

আপডেট: জানুয়ারি ৯, ২০২২, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ


এ,কে তোতা গোদাগাড়ী:


বরেন্দ্রর লাল মাটিতে চাষ হচ্ছে দার্জেলিং কমলা। ভালো ফলন ও দাম পেয়ে খুশি কমলা চাষি। রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌর এলাকার মহিশালবাড়ী গ্রামের সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা আব্দুর রশিদের ছেলে নজরুল ইসলাম সুজন বিশ্ববিদ্যালয়ের লেখাপড়া শেষে চাকরি না পেয়ে কৃষি কাজে নেমে পড়েন। উপজেলার মাটিকাটা ইউনিয়নের মাছমারা মৌজায় জমি লিজ নিয়ে পিয়ারা ও ড্রাগন ফল চাষের পাশাপাশি বাণিজ্যকভাবে কমলা চাষ করে সাফল্য পেয়েছেন। ২ বিঘা জমিতে দার্জেলিং কমলা চাষে খরচ হয়েছে ২ লাখ টাকা। চলতি মৌসুমে উৎপাদিত কমলা রাজশাহীর বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। কেমিকেলমুক্ত কমলা খেতে সুস্বাদু হওয়ায় জমি থেকেই কমলা ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছে ব্যবসায়ীরা।

এখন পর্যন্ত ১ লাখ ২০ হাজার টাকার কমলা বিক্রি করেছেন। কমলা চাষি নজরুল ইসলাম বলেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ নিয়ে বাণিজ্যিকভাবে ফল চাষ করি। পিয়ারা, ড্রাগন ও কমলা চাষকৃত জমিতে ১৫ জন শ্রমিকের কর্মসংস্থান করেছি। ফল চাষে বছরে ১০ থেকে ১২ লক্ষ টাকা আয় হচ্ছে। তবে প্রতি বছর উৎপাদন বাড়ায় আয়ের পরিমাণও বাড়ছে।
নজরুল ইসলাম সুজন আরও বলেন, কমলা চাষে সাফল্য পাওয়ায় আগামী বছর কমলা চাষে জমির পরিমাণ বাড়াবো। গোদাগাড়ী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা বলেন, এ অঞ্চলে বেকার শিক্ষিত যুবকরা বাণিজ্যিকভাবে ফল চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছে। আগ্রহীদের প্রশিক্ষণসহ কারিগরিভাবে সহযোগিতা করছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। এতে করে এ অঞ্চলে ফল চাষ বেড়ে যাওয়ায় শিক্ষিত বেকারদের কর্ম সংস্থানে সঙ্গে কৃষিতে বিপ্লব ঘটেছে।