বর্ডার হাটের মেয়াদ হচ্ছে ৫ বছর

আপডেট: ডিসেম্বর ১৩, ২০১৬, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে বসানো বর্ডার হাটগুলোর মেয়াদ তিন বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর প্রস্তাব করে তৈরি একটি সমঝোতা স্মারকের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে সরকার।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে ‘বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে বর্ডার-হাট স্থাপন ও পরিচালনা সংক্রান্ত মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং এবং মোড অব অপারেশন নবায়ন ও পুনঃস্বাক্ষরের জন্য খসড়া’ অনুমোদন দেয়া হয়।
বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, ২০১০ সালের ২৩ অক্টোবর তিন বছরের জন্য এই হাটগুলো (বর্ডার হাট) শুরু হয়, তিন বছর পার হয়ে গেছে। এজন্য নবায়নের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে। “নবায়ন করতে গিয়ে একটু সংশোধন আনতে হয়েছে।এর মেয়াদ তিন বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর করা হয়েছে।”
বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের চার জায়গায় বর্ডার হাট থাকার কথা জানিয়ে শফিউল বলেন, আরও কিছু জায়গায় হাট স্থাপনের প্রস্তাব আছে। নতুন যে হাটগুলো হবে সেগুলো পাঁচ বছরের জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে।
এছাড়া বর্ডার হাটে বিক্রেতাদের সংখ্যা ২৫ জন থেকে বাড়িয়ে ৫০ জন এবং এই হাটে পণ্য কেনার সীমা ১০০ ডলার থেকে বাড়িয়ে ২০০ ডলার করার প্রস্তাবও মন্ত্রিসভা অনুমোদন দিয়েছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
তিনি বলেন, এতদিন এই হাটে প্রবেশের অনুমতি জেলা প্রশাসক (ডিসি) বা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দিলেও এখন থেকে ডিসির অথরাইজড কর্মকর্তা সেই অনুমতি দিতে পারবেন।
মৌলভীবাজারে দুটি বর্ডার হাট বসাতে ভারতের সম্মতি পাওয়া গেছে বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
তিনি বলেন, এছাড়া মেঘালয়ের সীমান্তে আরও চারটি বর্ডার হাট হবে, তবে এগুলো চূড়ান্ত হয়নি। মোট ছয়টি বর্ডার হাট লাইনে আছে।- বিডিনিউজ