বর্ষবরণের রাতে ইস্তাম্বুলে নাইট ক্লাবে হামলা, নিহত ৩৯

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০১৭, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


02-istambul
নতুন বছরের প্রথম প্রহরে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে একটি নাইট ক্লাবে গুলি চালিয়ে ৩৯ জনকে হত্যা করা হয়েছে, আহত হয়েছেন অন্তত ৬৯ জন।
ইস্তাম্বুলের গভর্নরের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শনিবার রাত দেড়টায় শহরের ওরতাকোয় এলাকার জনপ্রিয় রেইনা নাইটক্লাবে এই হামলার ঘটনা ঘটে।
থার্টি ফার্স্ট উদযাপানের মধ্েয নতুন করে জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় ইউরোপ আমেরিকার বড় শহুরগুলোর মত ইস্তাম্বুলেও নেওয়া হয়েছিল কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা। এশিয়া ও ইউরোপের মিলনস্থলে ঐতিহ্যবাহী এই শহরের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন ১৭ হাজার পুলিশ। এর মধ্যেই বসফরাসের তীরে ইস্তাম্বুলের ইউরোপীয় অংশে ওই নাইট ক্লাবে এই ঘটনা ঘটল, যাকে ‘সন্ত্রাসী হামলা’ বলেছেন গভর্নর ভাসিপ শাহিন।
তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সওলু জানিয়েছেন, নিহতদের মধ্েয অন্তত ১৬ জন বিদেশি নাগরিক এবং একজন পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে তুরস্ক সিএনএন জানিয়েছে, হামলাকারী ছিল একজন। তার পরনে ছিল সান্তা ক্লজের পোশাক। হাতে ছিল লম্বা ব্যারেলের আগ্নেয়াস্ত্র। প্রথমে এক পুলিশসহ দুইজনকে গুলি করে ক্লাবে ঢোকে ওই ব্যক্তি। এরপর শুরু হয় নির্বিচারে গুলি। সেখানে তখন প্রায় ৭০০ মানুষ জড়ো হয়েছিলেন নতুন বছরকে বরণের উৎসবে। গুলি শুরুর পর প্রাণ বাঁচাতে অনেকেই ঝাঁপিয়ে পড়েন বসফরাস প্রণালীতে।
কে বা কারা এই হামলা চালিয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। গভর্নর শাহিন জানিয়েছেন, কর্তৃপক্ষ তদন্ত শুরু করেছে।- বিডিনিউজ