‘বলদ, মোষ এবং নারী, উত্তরপ্রদেশে সবাই সুরক্ষিত’, মন্তব্য যোগী আদিত্যনাথের

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১, ৭:৩০ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


‘আব্বাজান’ মন্তব্য নিয়ে রীতিমতো বিতর্কে জড়িয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। গোটা দেশ থেকে তাঁর মন্তব্যের বিরোধিতা করা হচ্ছে। এর মধ্যেই ফের এমন এক মন্তব্য করে বসলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী, যা নিয়েও আগামিদিনে বিস্তর বিতর্ক দেখা দিতে পারে। পূর্ববর্তী সরকারের সঙ্গে বর্তমান সরকারের পার্থক্য বোঝাতে গিয়ে আদিত্যনাথ নারীদের সঙ্গে একই আসনে বসিয়ে দিলেন বলদ এবং মোষকে।
সোমবার লখনউয়ের রাজ্য বিজেপির হেডকোয়ার্টারে দলীয় কর্মীদের সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে তিনি আগের সমাজবাদী সরকারের প্রবল সমালোচনা করেন। পাশাপাশি বলেন, তাঁর ক্ষমতায় আসার আগে রাজ্যের নারী, বলদ কিংবা ষাঁড় কেউই সুরক্ষিত থাকতেন না। আদিত্যনাথ বলেন, “এর আগে যেখানেই আমাদের কর্মীরা যেত, নারীরা জিজ্ঞাসা করতেন, আমরা কি নিরাপদে কখনও থাকতে পারব? আমাদের মা-বোনেরা সবসময়ই নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেন। এমনকী কোনও গরুর গাড়ি যদি পশ্চিম উত্তরপ্রদেশে যেত, তাহলে বলদ কিংবা মোষেরাও নিরাপদে থাকত না।”

এরপরই আদিত্যনাথের সংযোজন, “এর আগে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশেই এই ধরনের ঘটনাগুলি দেখা যেত। তবে পূর্ব উত্তরপ্রদেশে এগুলি হত না। কিন্তু এখনও কোথাও এই ধরনের কোনও ঘটনা ঘটে না। আজ বলদ, ষাঁড় কিংবা মহিলা-কাউকেই জোর করে কেউ তুলে নিয়ে যেতে পারে না। পার্থক্যটা বুঝতে পারছেন? তখন বলা হত, যেখান থেকে রাস্তায় গর্ত শুরু হচ্ছে, সেখান থেকেই উত্তরপ্রদেশের সীমানা শুরু। আগে সবসময় উত্তরপ্রদেশ অন্ধকারে ডুবে ছিল। রাতে প্রত্যেকেই রাস্তায় বেরতে ভয় পেতেন। কিন্তু এখন নয়।”

এদিকে, আব্বাজান ইস্যুতে যোগী আদিত্যনাথকে বিঁধলেন বলিউড অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “ওই মানুষটা (উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী) যেমন তেমনই বলেছেন। এই ধরনের মন্তব্যে কোনও প্রতিক্রিয়া দেওয়া যায় না। কিন্তু আসল ঘটনা হল ‘আব্বাজান’ মন্তব্যটি ওই ধরনেরই উসকানিমূলক মন্তব্য, যা আদিত্যনাথ সবসময়ই বলে থাকেন।”
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন