বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহতের তদন্ত চান গুতেরেস

আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০২২, ১০:০৮ অপরাহ্ণ

সৈনিক জসিম উদ্দিন, সৈনিক জাহাঙ্গীর আলম এবং সৈনিক শরিফ হোসেন।ছবি: আইএসপিআর

সোনার দেশ ডেস্ক:


সেন্ট্রাল আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে বোমা বিস্ফোরণে শান্তিরক্ষা মিশনে দায়িত্বরত তিন বাংলাদেশি সেনা সদস্য নিহতের ঘটনা তদন্ত করতে বলেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টেফান দুজারিক বলেন, আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী জাতিসংঘ শান্তিরক্ষীদের ওপর হামলা যুদ্ধাপরাধ হিসাবে বিবেচিত হতে পারে বলে উল্লেখ করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

“অপরাধীদের শনাক্ত করতে সব ধরনের পদক্ষেপ নিতে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব। যাতে তাদের দ্রুত সময়ে বিচারের আওতায় আনা সম্ভব হয়।”

সোমবার সেন্ট্রাল আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে রাস্তার পাশে পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে তিন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীর মৃত্যু হয়।
নিহত শান্তিরক্ষীরা হলেন– ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার কাটিঙ্গা গ্রামের জসিম উদ্দিন (৩১), নিলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলার দক্ষিণ টিট পাড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম (২৬) এবং সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি উপজেলার বাড়াক রুয়া গ্রামের শরিফ হোসেন (২৬)।

তিনজনই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সৈনিক পদে কর্মরত ছিলেন।
ওই বিস্ফোরণে টহল দলের অধিনায়ক মেজর আশরাফুল হকও আহত হয়েছেন।

রাতে ফ্লাইট পরিচালনার নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতেও আফ্রিকার দেশটির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব। তিনি বলেছেন, এই নিষেধাজ্ঞা শান্তিরক্ষীদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষার ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।

দুজারিক বলেন, “সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকের উহাম-পেন্ডে এলাকায় জাতিসংঘের মাল্টিডাইমেনশনাল ইন্টিগ্রেটেড স্ট্যাবিলাইজেশন মিশনের টহল দলে বিস্ফোরণে বাংলাদেশের তিন শান্তিরক্ষীর মৃত্যুর ঘটনায় জাতিসংঘ মহাসচিব গভীরভাবে শোকাহত।”

জাতিসংঘ মহাসচিব নিহতদের পরিবার ও বাংলাদেশ সরকারের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। আহতের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছেন তিনি।

এদিকে, সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছে জাতিসংঘের ঢাকা কার্যালয়।
বুধবার তাদের এক বিবৃতিতে বলা হয়, “দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অসামান্য ঝুঁকি নিয়ে থাকেন জাতিসংঘের শান্তিরক্ষীরা। শান্তির জন্য যেসব নারী-পুরুষ নিজেদের জীবন ও সুখকে বাজি রাখেন, আমরা সবসময় তাদের পাশে আছি এবং তাদের ত্যাগকে সম্মান জানাই।”

নিহত তিন সৈনিকের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানো এবং আহত মেজর আশরাফুলের দ্রুত আরোগ্য কামনা করা হয় বিবৃতিতে।
তথ্যসূত্র: িিবডিনিউজ