‘বাংলাদেশের আরো ধৈর্য ধরা উচিত ছিল’

আপডেট: মার্চ ১২, ২০১৭, ১২:১২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



গলে বাংলাদেশের আরো একটি স্বপ্নের অপমৃত্যু। আর এজন্য দায়ী সেই আগ্রাসী ব্যাটিং। টেস্ট মেজাজের ব্যাটিং ছাপিয়ে ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করাই এখন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের স্টাইল। এ নিয়ে কত আলোচনা-সমালোচনাও।
তবে আক্রমণাত্মক ব্যাট চালানো থেকে বের হয়ে আসতে পারছেন না টাইগাররা। এবার প্রতিপক্ষ অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথের চোখেও ধরা পড়লো সে ভুল। সোজাসাপ্টা জানিয়ে দিলেন, বাংলাদেশের আরো ধৈর্য ধরা উচিত ছিল।
জয় প্রায় অসম্ভব; তবে টেস্ট ড্র করার জন্য প্রয়োজন ছিল পঞ্চম ও শেষ দিনে সারাদিন ব্যাটিং করা। হাতে ছিল ১০টি উইকেট। অথচ প্রথম সেশনেই বাংলাদেশ খুইয়ে ফেলে প্রথম সারির পাঁচ ব্যাটসম্যানকে। মূলত সেখানেই হেরে যায় সফরকারীরা। এরপর বাকি ছিল কেবল আনুষ্ঠানিকতা। আর তার জন্য দ্বিতীয় সেশনে সময় লেগেছে প্রায় এক ঘণ্টা। ২৫৯ রান বাকি থাকতেই অলআউট বাংলাদেশ।
ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসেন লঙ্কান অধিনায়ক হেরাথ। সেখানে তাকে প্রশ্ন করা হয়, কেমন দেখলেন বাংলাদেশকে? জবাবে প্রশংসার বাণীই শোনালেন, ‘বাংলাদেশ ভালো ব্যাট করেছে। উইকেট এখনও খুব ভালো। মুশফিক ও সৌম্য ভালো ব্যাট করেছে।’ প্রশংসার বাণী শেষেই জানালেন, ‘তাদের আরো ধৈর্য ধরা উচিত ছিল।’
ধৈর্য যে সাকিব তামিমদের আরও দরকার; এটা যেমন বুঝেছেন হেরাথ, তেমনি বুঝে আসছে বাংলাদেশ দলও। কিন্তু প্রতিবার আশার কথা শুনিয়ে টাইগাররা মাঠে গিয়ে হয়তো ভুলে যান প্রতিশ্রুতির কথা। আর তাতে বারবার স্বপ্নভঙ্গের বেদনা সহ্য করতে হয় ১৬ কোটি বাংলাদেশির।