বাংলাদেশের শততম টেস্টের প্রথম অনুশীলন

আপডেট: মার্চ ১৩, ২০১৭, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আগামী বুধবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শততম টেস্ট খেলতে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। কলম্বোর পি সারা ওভাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে টাইগারদের মাইলফলক ছোঁয়ার ম্যাচটি। আর এ ম্যাচের জন্য একদিন আগেই শনিবার ভেন্যুর শহরে পৌঁছায় তারা। পরদিন রোববারই ঐচ্ছিক অনুশীলন করেছে সফরকারীরা। যদিও লঙ্কানরা এদিন কোনও অনুশীলন করে নি।
শনিবার রাতে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন ইমরুল কায়েস। রোববার তিনি গল টেস্টে একাদশের বাইরে থাকা পাঁচ ক্রিকেটারের সঙ্গে অনুশীলন করেছেন। তারা হলেন- কামরুল ইসলাম রাব্বি, রুবেল হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, সাব্বির রহমান ও তাইজুল ইসলাম।
স্টেডিয়ামে প্রবেশ করে প্রথমেই পিচ দেখতে উইকেটের দিকে এগিয়ে যান বাংলাদেশের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরাসিংহে। সঙ্গে বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ, ব্যাটিং পরামর্শক সামারাবিরা এবং ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজনও ছিলেন।
গল টেস্টে ২৫৯ রানে হারের পর শততম টেস্ট বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ বটে। সেই চ্যালেঞ্জ টপকাতে হলে বাংলাদেশকে তিন বিভাগেই ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। নয়তো কলম্বোর পুরানো রেকর্ডের বুকে আরও একটি রেকর্ড জমা পড়বে।
কেন না পি সারা ওভালে বাংলাদেশের টেস্ট রেকর্ড খুবই বাজে। ২০০২ সালে এই ভেন্যুতে প্রথমবার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। প্রথম লড়াইয়ে ইনিংস ও ১৯৬ রানে হার মানে লাল-সবুজরা। এমনকি এ মাঠে ২৫.২ ওভারে ৬২ রানে অলআউট হওয়ার বাজে অভিজ্ঞতা রয়েছে বাংলাদেশের। ছয় ইনিংসের মধ্যে কেবল একবার দুইশ ছাড়াতে পেরেছে তারা। ২০০৭ সালে ওই মাঠে নিজেদের সর্বশেষ ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ২৯৯ রান করেছিল বাংলাদেশ। তারপরও ওই ম্যাচটিতে বাংলাদেশ হেরেছিল ইনিংস ও ৯০ রানের ব্যবধানে।
অনেক দুর্বল পরিসংখ্যান থাকলেও আগামী বুধবার ভালো কিছু করার প্রেরণা হতে পারে শততম টেস্ট। মুশফিকরা অবশ্যই চাইবেন গলের ব্যর্থতা ভুলে কলম্বোতে ঘুরে দাঁড়াতে। তাদের আশা শততম টেস্ট জিতে কলম্বোতে ইতিহাস বদলে দেওয়ার।-বাংলা ট্রিবিউন