বাংলাদেশের ৬.৯% প্রবৃদ্ধির আশা দেখছে এডিবি

আপডেট: এপ্রিল ৭, ২০১৭, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


রেমিটেন্স ও রপ্তানি আয়ের ধীর গতির কারণে চলতি অর্থবছর বাংলাদেশ জিডিপি প্রবৃদ্ধির কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে না বলেই মনে করেছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক- এডিবি।
অর্থনীতির হাল হকিকত নিয়ে এডিবির বার্ষিক প্রতিবেদন ‘এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক ২০১৭’ বলছে, এবার বাংলাদেশ ৬ দশমিক ৯ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি পেতে পারে।
প্রায় এক দশক ৬ শতাংশের বৃত্তে ‘আটকে’ থাকার পর গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশের ‘ঘর’ অতিক্রম করে। চূড়ান্ত হিসাবে প্রবৃদ্ধি হয় ৭ দশমিক ১১ শতাংশ।
সরকার এবারের বাজেটে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৭ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ঠিক করেছে। আর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের বিশ্বাস, আগামী দিনগুলোতে প্রবৃদ্ধি আর ৭ শতাংশের নিচে নামবে না।
তবে এডিবির মত বিশ্ব ব্যাংকও সরকারের প্রত্যাশার সঙ্গে পুরোপুরি একমত হতে পারেনি। গত জানুয়ারিতে তাদের অর্ধবার্ষিক প্রতিবেদন ‘গ্লোবাল ইকোনমিক প্রসপেক্টস’ – এ ৬ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার এডিবির ঢাকা কার্যালয়ে প্রিন্সিপাল কান্ট্রি স্পেশালিস্ট জয়ৎসানা ভার্মা এবারের ‘এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক’ এর বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বলেন, “মূলত রেমিটেন্স কমে যাওয়ায় এবং রপ্তানি আয়ের ধীর গতির কারণে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি এবার কিছুটা কম হবে।”
মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশের অর্থনীতি বাজে সময় পার করায় এবং তেলের বাজারে মন্দার কারণে সেসব দেশ থেকে প্রবাসীদের পাঠানো টাকার পরিমাণ গত দুই বছর ধরে কমছে।
গত অর্থবছরে রেমিটেন্সে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি কমেছে ১১ দশমিক ১৬ শতাংশ। এডিবির পূর্বাভাস বলছে, চলতি অর্থবছর শেষে রেমিটেন্স কমতে পারে ৭ শতাংশের মত।
আর আগের অর্থবছরে পণ্য রপ্তানিতে বাংলাদেশের আয়ের প্রবৃদ্ধি ছিল ৮ দশমিক ৯ শতাংশ। গত কিছুদিনে রপ্তানি