বাংলাদেশে ৫ কোটি টিকা পাঠাতে অস্ট্রেলিয়ার সংসদে প্রবাসীদের আবেদন

আপডেট: জুলাই ২৩, ২০২১, ৮:১০ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


বাংলাদেশে উপহার হিসেবে ৫০ মিলিয়ন বা পাঁচ কোটি করোনা ভ্যাকসিন পাঠানোর জন্য অস্ট্রেলিয়ান পার্লামেন্টে আবেদন করেছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এই আবেদন অনুমোদনের জন্য পার্লামেন্ট কর্তৃপক্ষ নিয়ম অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে প্রবাসীদের। এরই প্রেক্ষিতে অনলাইন আবেদনের মাধ্যমে স্বাক্ষর সংগ্রহ শুরু করেছেন উদ্যোক্তারা।
অস্ট্রেলিয়ার যে কোনো নাগরিক এ আবেদনে স্বাক্ষর করতে পারবেন। যদি ১২ আগস্টের মধ্যে ১০ হাজার স্বাক্ষর সংগ্রহ করা যায় তাহলে স্পিকারের মাধ্যমে বিষয়টি সংসদে উত্থাপন করা হবে।
আবেদনে বলা হয়েছে, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতিদানকারী দেশগুলোর মধ্যে অস্ট্রেলিয়া অন্যতম। আমরা বিশ্বাস করি, উদ্বৃত্ত অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে দিলে তা দুই দেশের সম্পর্কে আরও একটি মাইলফলক হবে।
অস্ট্রেলিয়া তাদের নিজস্ব ল্যাবরেটরিতে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন উৎপাদন করছে। দেশটিতে ৫০ মিলিয়ন ভ্যাকসিন উদ্বৃত্ত রয়েছে। যেহেতু অস্ট্রেলিয়ায় ইতোমধ্যেই ফাইজারের ভ্যাকসিন পৌঁছে গেছে তাই সবাই সেটি নিতে আগ্রহী। আগামী ৫ মাসের মধ্যে মডার্নার ভ্যাকসিনও পৌঁছাবে দেশটিতে।
এ আবেদনের উদ্যোক্তা ও স্বাস্থকর্মী সৈয়দ রাসেল বলেন, আমরা ৫০ মিলিয়ন ভ্যাকসিন উপহার হিসেবে পাওয়ার চেষ্টা করছি। যেহেতু অস্ট্রেলিয়া নিজস্ব ল্যাবরেটরিতে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন তৈরি করে, তাই এখান থেকে চাহিদা অনুযায়ী ভ্যাকসিন পাওয়ার সুযোগ রয়েছে।
অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মরিস পেইন ২ জুন এক ফেসবুক বার্তায় বলেন, অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশে করোনা মোকাবিলায় কাজ করছে। ইন্ডো-প্যাসিফিক অঞ্চলে আমাদের বন্ধুদের অংশীদারত্বের ভিত্তিতে সাহায্য অব্যাহত থাকবে।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ