বাংলাদেশ-ভারত সাংস্কৃতিক মিলনমেলা সাজছে নগরী

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২২, ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী নগরীতে চার দিনব্যাপি শুরু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত সাংস্কৃতিক মিলনমেলা-২০২২। প্রতিবেশী বন্ধুরাষ্ট্র ভারতের সঙ্গে এদেশের সম্প্রীতির ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে। দুটি দেশের ভৌগোলিক, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক, যোগাযোগসহ সকল ক্ষেত্রের উন্নয়নের প্রয়াসে রাজশাহী নগরীতে ৫ম বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এই মিলন মেলা। যেখানে দুই দেশের বিশিষ্ট জনেরা অংশগ্রহণ করবেন।

আর এই আয়োজনকে সামনে রেখে নগরজুড়ে সাজসাজ রব। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম জোরদার করাসহ পুরো নগরীকে উৎসবের আমেজে সাজানো হচ্ছে। সাংস্কৃতিক এই মিলন মেলাকে সামনে রেখে নগরীর ফুটপাতে দোকান বসাতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে রাজশাহী সিটি করপোরেশন।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ ও বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রীর ৫০ বছর পূর্তিতে ফ্রেন্ডস অব বাংলাদেশের আয়োজনে এবং রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক)’র তত্ত্বাবধানে আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি মিলনমেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হবে। চলবে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টায় নগর ভবনের সিটি হলরুমে আনুষ্ঠানিকভাবে এই সাংস্কৃতিক মিলনমেলার লোগো ও প্রোমো উন্মোচন করা হয়। লোগো ও প্রোমো উন্মোচন করেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য, রাসিক মেয়র ও প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

জানা যায়, ২৫ থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি চারদিনব্যাপি সাংস্কৃতিক মিলনমেলায় ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও ত্রিপুরা থেকে প্রাদেশিক মন্ত্রী, রাজনৈতিক নেতা, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তি, দেশের কয়েকজন মন্ত্রী, সাংসদ, রাজনৈতিক-সামাজিক-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী, সরকারি কর্মকর্তা ও বিভিন্ন স্তরের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করবেন। এই সাংস্কৃতিক উৎসবের মধ্যে দিয়ে দুই দেশের সকল ক্ষেত্রে নতুন সম্ভাবনার দিগন্ত উন্মোচিত হবে।

এই উৎসবের মূল ভেন্যু রাজশাহী কলেজ। যেখানে দুই দেশের প্রখ্যাত শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক আয়োজন থাকবে। চারদিনব্যপি চলবে মেলা। এই আয়োজনকে সামনে রেখে এরইমধ্যে রাজশাহী কলেজ ও সামনের সড়ককে সাজানো হচ্ছে। নগরীর সকল আইল্যান্ডকে রং করা হচ্ছে। ভাঙ্গা আইল্যান্ডকে মেরামত করা হচ্ছে। নগরজুড়ে তোরণ নির্মাণ কাজ চলমান। আইল্যান্ডের বৃক্ষগুলোকে সুন্দর অবয়বে নিয়ে আসাসহ পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের কর্মীরা।

নগরীতে এই সাংস্কৃতিক মিলনমেলাকে সামনে রেখে নগরীর ফুটপাতগুলোতে সকল দোকানপাট স্থাপনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে রাসিক। বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) থেকে এই অবৈধ দোকান উচ্ছেদে অভিযানে নেমেছে রাসিক-এর এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইমরানুল হক। অভিযানে সড়ক ও ফুটপাতে রাখা নির্মাণ সামগ্রী অপসারণ করা হয়েছে।

রাসিকের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইমরানুল হক জানান, নগর ভবন থেকে কাদিরগঞ্জ গ্রেটার রোড হয়ে বর্ণালী মোড় হয়ে রাজিব চত্বর, ঘোষপাড়া মোড় হয়ে বাইপাস, কোর্ট স্টেশন চত্বর হয়ে ভেড়িপাড়া মোড়, নির্বাচন অফিস মোড় হয়ে সিএন্ডবি মোড়, লক্ষীপুর মোড় হয়ে জিপিও ও নগর ভবন পর্যন্ত বিভিন্ন সড়ক ও ফুটপাতে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় রাস্তা, ফুটপাত ও ড্রেনের উপর অবৈধভাবে ফেলে রাখা নির্মাণ সামগ্রী অপসারণ করা হয় এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও দোকানের ট্রেড লাইসেন্স পরিদর্শন করা হয়। এ সময় ৩টি মামলা দায়ের করে ৫ হাজার ৫০০ টাকা অর্থদ- আদায় করা হয়।

তিনি আরও জানান, নগরীতে চারদিনব্যাপি একটি বড় প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। যেখানে দেশ-বিদেশের অনেকে অংশগ্রহণ করবে। গ্রিন, ক্লিন ও হেলসি সিটি খ্যাত এই নগরীর সুনাম বিশ্বব্যাপি। এই সুনাম অব্যাহত রাখতে নিয়মিত অভিযান চলে। তবে এই অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। ফুটপাতের সৌন্দর্য নষ্ট হয় এমন সকল দোকানিকে সাবধান করা হচ্ছে। না মানলে আইনের আওতায় আনা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ