বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার পেলেন রাবির দুই অধ্যাপক খালেক ও জলিল

আপডেট: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩, ১১:২০ অপরাহ্ণ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বাংলা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. আবদুল খালেক এবং অধ্যাপক ড. মুহম্মদ আবদুল জলিল

রাবি প্রতিবেদক:


বাংলা সাহিত্যের বিভিন্ন অঙ্গনে উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বাংলা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. আবদুল খালেক এবং অধ্যাপক ড. মুহম্মদ আবদুল জলিল। তাঁরা দুজনই ফোকলোরে অসামান্য অবদান রাখায় এই পুরস্কার পেয়েছেন।

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার কমিটি ২০২২-এর সকল সদস্যের সম্মতিক্রমে এবং বাংলা একাডেমি নির্বাহী পরিষদের অনুমোদনক্রমে এই পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। বাংলা একাডেমি আয়োজিত অমর একুশে বইমেলা ২০২৩-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ীদের হাতে এই পুরস্কার তুলে দেবেন।

অধ্যাপক ড. আবদুল খালেক ১৯ আগস্ট ১৯৩৭ সালে সিরাজগঞ্জের চরনবীপুুরে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি একাধারে বাংলাদেশী শিক্ষাবিদ, প্রাবন্ধিক, কলামনিস্ট ও রাজনীতিবিদ। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করেন। সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুরে করতোয়া কলেজ নামে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি রাজশাহীর নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য। বর্তমানে দ্বিতীয় মেয়াদে উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। কর্মজীবনে অধ্যাপক আবদুল খালেক পাবনার সরকারী এডওয়ার্ড কলেজের বাংলা বিভাগে অধ্যাপনা করেন। পরবর্তিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা শেষে তিনি নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। অধ্যাপক আবদুল খালেক একজন যশস্বী শিক্ষাবিদ, চতুর্ভাষিক। তিনি বাংলা, ইংরেজি, সংস্কৃত ও চীনা ভাষায় পারদর্শী।

তিনি ১৯৯৯ সালে পশ্চিমবঙ্গ বাংলা একাডেমী থেকে গুণীজন সংবর্ধনা পেয়েছেন, ২০০৫ সালে মীর মোশাররফ হোসেন স্বর্ণপদক, ২০১০ সালে স্মৃতি স্মারক, ২০১৫ সালে রবীন্দ্র মেলা সম্মাননা স্মারক, বাংলা সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য বাংলা বিভাগ অ্যালামনাই হতে ‘সম্মাননা স্মারক-২০১৭’, ফোকলোর গবেষণায় বিশেষ অবদানের জন্য ‘ড. আসাদুজ্জামান সাহিত্য পদক’, ২০১৭ সালে জোহরা-শামসুন্নাহার সাহিত্য গবেষণা পুরস্কার, একই বছরে ড. আসাদুজ্জামান সাহিত্য পদকে ভূষিত হন।

অধ্যাপক ড. মুহম্মদ আবদুল জলিল ১৯৪৮ সালের ৬ জুন সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার হলদিঘর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একাধারে একজন শিক্ষক, ফোকলোর গবেষক ও লেখক। তিনি বাংলা একাডেমির একজন ফেলো। তিনি বর্তমানে নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি উপ-উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮৬ সালে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।

কর্মজীবনে আবদুল জলিল বাংলা একাডেমিতে কাজ করেন। পরবর্তীতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে শিক্ষকতা করেন। এরপর একই প্রতিষ্ঠানে ফোকলোর, বাংলা, নাট্যকলা বিভাগে অধ্যাপনা ও সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।

পুরস্কার পাবার পর অনুভূতি জানতে চাইলে ড. আবদুল খালেক বলেন, এটি খুবই আনন্দের খবর। খুব ভালো লাগছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য হিসেবে এবং বর্তমানে নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। এই ধরনের সম্মাননা দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্যই গৌরবের বলে মনে করেন তিনি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ