বাউবি’র রাজশাহী আঞ্চলিক কেন্দ্রে উপাচার্যের মতবিনিময়

আপডেট: মে ১০, ২০২২, ১০:৩৩ অপরাহ্ণ

বাউবি’র রাজশাহী আঞ্চলিক কেন্দ্রের পক্ষ থেকে উপাচার্যকে ফুল দিয়ে বরণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:


বাংলাদেশ উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের পাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার মঙ্গলবার (১০ মে) বাউবি’র রাজশাহী আঞ্চলিক কেন্দ্রের কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং উপ-আঞ্চলিক কেন্দ্রসমূহের অফিস প্রধানগণের সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। শুরুতেই বাউবি’র রাজশাহী আঞ্চলিক কেন্দ্রের আঞ্চলিক পরিচালক টি.এম আহমেদ হুসেইন স্বাগত বক্তব্যে আঞ্চলিক কেন্দ্রের বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে সংক্ষেপে কথা বলেন এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিচয় করিয়ে দেন।

এরপর আঞ্চলিক কেন্দ্রের উপ-আঞ্চলিক পরিচালক মোহা. আবু বাককার অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনার পাশাপাশি তাঁর সংশ্লিষ্ট প্রোগ্রামের বিষয়াদি উপস্থাপন করেন। আঞ্চলিক কেন্দ্রের অর্থ ও হিসাব বিভাগের বিষয়াদি নিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন অর্থ ও হিসাব বিভাগের উপ-পরিচালক মোছা. মোরশেদা খাতুন এবং প্রোগ্রাম সংশ্লিষ্ট সকল বিষয়ের সমস্যা ও সমাধানের সম্ভাব্য উপায় নিয়ে আঞ্চলিক কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক আবু তালেব হোসেন আঞ্চলিক পরিচালক ও প্রোগ্রাম অফিসারদের পক্ষে বিস্তারিত তথ্যাদি তুলে ধরেন।

প্রশাসনিক বিষয়াদি নিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন সহকারী পরিচালক মো. মাহবুবুর রহমান এবং পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আঞ্চলিক কেন্দ্রের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (পরীক্ষা) মো. আরিফুজ্জামান তাঁর বক্তব্য উপস্থাপন করেন। রাজশাহী আঞ্চলিক কেন্দ্রের আওতাধীন উপ-আঞ্চলিক কেন্দ্রের প্রধান উপ-আঞ্চলিক পরিচালক মো. মজিবুল হক (পাবনা), উপ-আঞ্চলিক পরিচালক মো. গোলাম কিবরিয়া (নওগাঁ), উপ-পরিচালক শাহ্ মুহা. আব্দুল মালেক (নাটোর) ও সহকারী আঞ্চলিক পরিচালক মোহা: শামসুজ্জামান (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) পর্যায়ক্রমে তাঁদের চলমান কার্যক্রম ও বিভিন্ন দাপ্তরিক বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা-পর্যালোচনামূলক বক্তব্য রাখেন।

সর্বোপরি উক্ত মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথি বাংলাদেশ উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার তাঁর গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য উপস্থাপন করেন। তিনি বক্তব্যের শুরুতেই হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। তিনি বাঙালি জাতির জন্য বঙ্গবন্ধুর আত্মত্যাগের বিষয়টি সবিস্তারে তুলে ধরেন। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর আত্মত্যাগ-এর কথা স্মরণ করেন এবং শহিদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

উপাচার্য বলেন, জীবন ব্যাপী শিক্ষার শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ বাউবি। তিনি আরো বলেন বাউবি সম্পর্কে জনমানুষের ধারণা অধিকতর স্পষ্ট হওয়ার জন্য বাউবি’র প্রোগ্রাম সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোর ব্যাপক প্রচার প্রয়োজন।

উপাচার্য আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে রূপকল্প ২০৪১ যথাযথ কার্যে পরিণত করার প্রত্যয়ে বাউবি প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, অবহেলিত ও বিভিন্ন কারণে বঞ্চিত সম্প্রদায়, উপজাতি জনগোষ্ঠী, তৃতীয় লিঙ্গ সম্প্রদায়ের সদস্যবৃন্দ ইত্যাদি শ্রেণির মানুষকে জীবনব্যাপী শিক্ষার আওতাভূক্ত করে এবং সাধ্যমত কারিগরী শিক্ষার আলোর পাদপীঠে এনে কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীতে পরিণত করে তাদেরকে দেশের বোঝা না বানিয়ে সম্পদে পরিণত করার অভিলক্ষ্যে বাউবি কাজ করে যাচ্ছে।
উপাচার্য বাউবি’র রাজশাহী আঞ্চলিক কেন্দ্রের ক্যাম্পাসে একটি ফলজ গাছ (জামরুল)-এর চারা রোপন করেন।