বাগমারায় উন্নয়নের বীজ বপন করা হয়েছে : সাংসদ এনামুল

আপডেট: ডিসেম্বর ১১, ২০১৬, ১১:৪০ অপরাহ্ণ

বাগমারা প্রতিনিধি



রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেছেন, শান্তির বাগমারায় এখন উন্নয়নের বীজ বপন করা হয়েছে। গত ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার আগে প্রধানমন্ত্রী ও আমাদের অঙ্গিকার ছিল বাগমারাকে সন্ত্রাস এবং জঙ্গিমুক্ত করা। নির্বাচিত হওয়ার পরেই বাগমারাকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিমুক্ত করা হয়েছে। এই সরকারের সময়ে বাগমারায় একটিও পটকা ফুটেনি। তিনি গত শনিবার রাতে উপজেলার হাটখুজিপুর স্কুল মাঠে আউচপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান সরদার জান মোহাম্মদের সংবর্ধনা  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেছেন।
তিনি আরও বলেন, বাগমারায় কোনো সন্ত্রাসীদের স্থান দেওয়া হবে না। যদি কেউ ভালো হতে চায়, তাকে সুযোগ দেয়া হবে।
এনামুল হক এলাকাবাসীর উদ্দেশে বলেন, আপনাদের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করা হয়েছে। আপনাদের কথা শোনার জন্য প্রতি সপ্তাহে বাগমারায় আসি। এখন পর্যন্ত ঢাকা থেকে আমি এক হাজার বার বাগমারায় এসেছি। কথা ও সমস্যা শোনে তা মহান জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করেছি। বিভিন্ন দপ্তর এবং মন্ত্রণালয়ে ছুটে যায় এলাকার সমস্যা সমাধানের জন্য।  তিনি আরও বলেন, আমি দলীয় কার্যালয় ও আমার নিজস্ব প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন বসে এলাকার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করেছি।
এনামুল হক ইউনিয়নবাসীদের অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এই প্রথম আউচপাড়া ইউনিয়নবাসী নৌকার প্রার্থীকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান বানিয়েছেন। এলাকার উন্নয়নের জন্য চেয়ারম্যান ও সদস্যদের কাজে লাগানোর আহ্বান জানান। তিনি আরও বলেন, একটি দুষ্টু চক্রের কারণে গত ৭মের ইউপি নির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়। এই নির্বাচনের জন্য আউচপাড়া থেকে আওয়ামী লীগের চারটি নিবেদিত প্রাণহানি হয়েছে। এদের সর্ম্পকে সজাগ থাকতে হবে। ওইসব দুষ্টুচক্রের স্থান আউচপাড়া তথা গোটা বাগমারায় হবে না। তিনি গত নির্বাচনের সময় পুলিশের গুলিতে নিহত চার আওয়ামী লীগের কর্মীর পরিবারকে এক লাখ টাকা করে অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।এছাড়াও হাটখুজিপুর বিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য এক লাখ টাকা দেওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন।
আউচপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বাবলু সরকারের সভাপতিত্বে ও সাবেক সদস্য আফসার আলীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান সরদার জান মোহাম্মদ। বিশেষ অতিথি থেকে বক্তব্য দেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অনিল কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক আলফোর রহমান, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক সরকারি কৌঁসুলি ইব্রাহিম হোসেন, সাবেক সহসভাপতি অধ্যাপক আব্দুস সামাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহভাপতি আহসান হাবিব, য্গ্মু সম্পাদক সিরাজ উদ্দিন সুরুজ, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল হাসান সুজন,সহদফতর সম্পাদক নুরুল  ইসলাম।