বাগমারায় নির্বাচনী সহিংসতায় দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি মামলা

আপডেট: নভেম্বর ৫, ২০১৬, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

বাগমারা প্রতিনিধি


index
রাজশাহীর বাগমারার ঝিকরা ইউনিয়নের মরুগ্রামে নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনায় থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করেছে দুইপক্ষ। পরাজিত নারী সদস্য আসমা বেগম ও বিজয়ী নারী সদস্য আঞ্জুয়ারা বাদী পাল্টাপাল্টি এ মামলা দায়ের করেন। গত বৃহস্পতিবার রাতেই এ দুই নারী সদস্য থানায় এজাহার দুইটি দাখিল করলে পুলিশ তা মামলা হিসেবে নথিভুক্ত  করেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ৩১ অক্টোবর উপজেলার ঝিকরা ইউনিয়নে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পরের দিন সকালে একই ইউনিয়নের মরুগ্রামে বিজয়ী আঞ্জুয়ারা ও পরাজিত প্রার্থী আসমা বেগমের সমর্থকদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় মহিলাসহ ১৩ জন আহত হয়। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বাগমারা হাসপাতাল ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ওই দিন বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে একই পরিবারের ৫ জনকে আটক করে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলা করার বাদী না পেয়ে পরের দিন তাদেরকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করেন। সংঘর্ষের বিষয়টি পরের দিনে ফলাও করে পত্রিকায় প্রকাশিত হলে রাজশাহীর পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন। পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন নির্যাতিতদের অভিযোগ আমলে নিয়ে ঘটনা সর্ম্পকে পুলিশের কোন অবহেলা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থার নেয়ার আশ্বাস দেন। গত বুধবার সকালে পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন ঝিকরা এলাকায় পৌঁছার খবরটি ছড়িয়ে পড়লে পুরুষ লোকজনেরা পালিয়ে যায়। নির্যাতিতদের পরিবার ছাড়া পুলিশ সুপারের সামনে আর কেউ ছিল না বলে এলাকার লোকজন জানান।
সংঘর্ষের বিষয়টি স্থানীয়ভাবে আ’লীগের নেতৃবৃন্দরা মিমাংসার চেষ্টা করলে নির্যাতিতদের পরিবারের সম্মতি না থাকায় সেটা করা সম্ভব হয় নি। নির্যাতিত পরিবারের পক্ষ থেকে রাতেই আসমা বেগম নামের এক নারী ২৬ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেন। ওই রাতেই প্রতিপক্ষের আঞ্জুয়ারা বেগম বাদী হয়ে পরাজিত প্রার্থী আসমা বেগমের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ১১ জনকে আসামি করে আরো একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়ের করার পর পরই ঝিকরার মরুগ্রাম এলাকায় পুরুষ শূণ্য হয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার ওসি তদন্ত আসাদুজ্জামান আসাদ মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, উভয় পক্ষের দুইটি মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।