বাগমারায় ভাইয়ের হাতে বোন ও বোনজামাই নির্যাতনের শিকার, মামলা

আপডেট: মার্চ ২৩, ২০১৭, ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

বাগমারা প্রতিনিধি


বোনদের ফাঁকি দিয়ে ভাইদের জমি রেজিস্ট্রি করতে বাবা-মাকে নিষেধ করায় ভাই-ভাতিজার হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়েছে বোন জেসমিন আরা সাথী (৩৪) ও বোনজামাই মাওলানা সাইফুল ইসলাম (৪৫)। উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের সাঁইপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার বোন জেসমিন আরা বাদী হয়ে ভাই ও ভাতিজাসহ পাঁচজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
বাগমারা থানার মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের সাঁইপাড়া গ্রামের সুরুতুজ্জামান মজনু ও তার স্ত্রী হাসনা বানু দীর্ঘদিন থেকে জটিল রোগে ভুগছিলেন। স্বামী-স্ত্রীর সম্পত্তি তাদের মেয়েদের ফাঁকি দিয়ে ছেলে হাসানুজ্জামান, সোহাগ রানা ও শহিদুজ্জামান মিলে জমিগুলো রেজিস্ট্রি করে নিবে বলে তাদের বাব-মায়ের উপর চাপ সৃষ্টি করেন। বিষয়গুলো জানার পর গত সোমবার বিকেলে মেয়ে জেসমিন আরা ও তার স্বামী মাওলানা সাইফুল ইসলাম বাবা-মাকে দেখার জন্য সাঁইপাড়া গ্রামে আসেন। জমিজমা রেজিস্ট্রি বিষয়ে মেয়ে জেসমিন আরা তার বাবা সুরুতুজ্জামান মজনুকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি অস্বীকার করেন। বিষয়টি শোনার পর হাসানুজ্জামান ও তার ভাইয়েরা মিলে বাবা-মাকে মারার জন্য উদ্যত হয়। সেই সময় ছেলেদের শান্ত করার জন্য জেসমিন আরার স্বামী বোনজামাই মাও. সাইফুল ইসলাম এগিয়ে গেলে তারা সংঘবদ্ধভাবে তার উপর হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। মাও. সাইফুল ইসলামের ওপর হামলার সময় হাসানুজ্জামানের বোন জেসমিন আরা এগিয়ে গেলে হামলাকারীরা তাদের উপর হামলা চালিয়ে মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তাদের হট্টগোলে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসে এবং আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। জেসমিন আরা সুস্থ্য হওয়ার পর মঙ্গলবার রাতেই হাসানুজ্জামান, শহিদুজ্জামান, সোহাগ রানা, আরাফাত হোসেন জনি ও রুপা বিবিকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার বাদী জেসমিন আরা অভিযোগ করে বলেন, তার ভাইয়েরা বাবা-মার সম্পত্তি নিজেদের নামে লিখে নেয়ার জন্য বার বার চেষ্টা করেছে। আমরা বিষয়টি লিখিতভাবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, নির্বাহী অফিসার ও সাবরেজিস্ট্রারকে অবহিত করেছি। আমি তাদের অমানুষিক নির্যাতনের বিচার ও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসিম আহম্মেদ বলেন, নির্যাতনের ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ