বাগাতিপাড়ায় অপহরণের ৪ দিন পর উদ্ধার হলো স্কুল ছাত্রী

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২৪, ৮:৩৪ অপরাহ্ণ


বাগাতিপাড়া (নাটোর) প্রতিনিধি:নাটোরের বাগাতিপাড়ার এক স্কুল ছাত্রীকে অপহরণের চার দিন পর উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাতে নাটোর শহর থেকে ওই স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এ সময় অপহরণকারী অন্তর আহমেদ ও তাঁর বাবা আতাহার আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে র‌্যাব।

অপহরণের র‌্যাব-৫, সিপিসি-২ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সঞ্জয় কুমার জানান, বাগাতিপাড়ার রহিমানপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে স্কুল ও প্রাইভেট পড়তে যাওয়া-আসার সময় অভিযুক্ত অন্তর আহমেদ বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতেন। বিষয়টি ওই ছাত্রী তার পরিবারকে জানালে অভিভাবকেরা অন্তরকে নিষেধ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে অন্তর।

এক পর্যায়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি সকালে ওই ছাত্রী বাড়ি থেকে বেড় হয়ে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে রহিমানপুর বাজারে পৌঁছালে অন্তরসহ আরও তিন থেকে চার জন জোর করে ওই ছাত্রীকে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে নিয়ে চলে যায়। পরে জানা যায়, অন্তর ও তাঁর সহযোগিরা ওই ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গেছেন।

এ ঘটনায় স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে অন্তর আহমেদ ও তাঁর বাবা আতাহার আলীর নামসহ অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে বাগাতিপাড়া থানায় একটি অপহরণ মামলা করেন। মামলার পর পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তার এবং অপহরণ ছাত্রীকে উদ্ধারের জন্য র‌্যাব-৫ বরাবর আবেদন করেন। এরই প্রেক্ষিতে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামিদের ও অপহরণকৃত ছাত্রীর অবস্থান চিহ্নিত করে র‌্যাব।

পরে সোমবার রাতে শহরের বড়হরিশপুর এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অপহরণকারী ছেলে ও তার বাবাকে গ্রেপ্তার এবং তাদের হেফাজত থেকে স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। পরে গ্রেপ্তারদেরসহ ওই ছাত্রীকে বাগাতিপাড়া থানায় সোপর্দ করা হয়।

বাগাতিপাড়া মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নান্নু খান বলেন, আসামীদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমকে মেডিকেল পরিক্ষা করিয়ে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হবে।