বাগাতিপাড়ায় চিকিৎসকের বিরুদ্ধে সত্যায়িত করতে অর্থ নেয়ার অভিযোগ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৭, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ড্রাইভিং লাইসেন্স ফরমে সত্যায়িত করে অর্থ নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে কর্তব্যরত অবস্থায় এ অর্থ গ্রহণ করেন ওই চিকিৎসক।
ভুক্তভোগী উপজেলার গালিমপুর গ্রামের মৃত নওয়াব আলীর ছেলে সোলায়মান জানান, তিনি গত বৃহস্পতিবার দুপুরে মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স ফরম সত্যায়িত করতে যান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। তিনি বলেন, সার্টিফিকেট বা ভোটার আইডি সত্যায়িত করতে কোন টাকা না নিলেও ড্রাইভিং লাইসেন্স সত্যায়িত করতে টাকা দাবি করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আয়েশা সিদ্দিকি আশা। কেন টাকা লাগবে এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. আয়েশা সিদ্দিকি আশা তাকে বলেন, তাদের টাকা নেয়ার নিয়ম আছে। তাৎক্ষণিক রাসেল ভাইয়ের (বাগাতিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও) সঙ্গে মুঠোফোনে জেনে নেন স্বাক্ষর করতে কতো টাকা করে নেন। এবার ডা. আশা সোলায়মানকে জানিয়ে দেন তিনশ টাকা লাগবে। যথারীতি সোলায়মান ডা. আশাকে দিয়ে তিনশ টাকার বিনিময়ে মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স ফরম সত্যায়িত করিয়ে নেন। কিন্তু সোলায়মান কৌশলে তার অর্থ লেনদেনের ঘটনা মোবাইলে ফোনে ভিডিও ধারণ করেন। সোলায়মান আরো বলেন, এমন ঘটনা যেন আর কারো সাথে না ঘটে সে জন্য তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
ডা. আয়েশা সিদ্দিকি আশা টাকা নেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, আমাদের সিনিয়র ভাইয়েরা এ ব্যাপারে টাকা নিয়ে থাকেন, আমিও নিয়েছি।
এ বিষয়ে বাগাতিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার আমিনুল ইসলাম মুঠোফোনে বলেন, অফিসিয়ালি এ ব্যাপারে টাকা নেয়ার কোন নিয়ম নেই।