বাগাতিপাড়ায় জমির দখল ফিরে পেতে চায় সংখ্যালঘু এক নারী

আপডেট: নভেম্বর ১৬, ২০২৩, ৭:২০ অপরাহ্ণ


বাগাতিপাড়া (নাটোর) প্রতিনিধি:


নাটোরের বাগাতিপাড়ায় পৈত্রিকসূত্র প্রাপ্ত নিজ জমির দখলস্বত্ব ফেরত পেতে প্রেস কনফারেন্স করেছে বিউটি মন্ডল নামের এক সংখ্যালঘু ভুক্তভোগী।
বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) সকালে উপজেলা প্রেসক্লাবে এ প্রেস কনফারেন্স করেন তিনি। বিউটি মন্ডল উপজেলার আরাজীমাড়িয়া এলাকার মৃত অধির মন্ডলের মেয়ে। তিনি বলেন, আমি অবিবাাহিত অবস্থায় আমার পিতার মৃত্যু হলে আমার মা আমাকে একটি লিচু ও কাঁঠাল বাগানসহ ৩ বিঘা জমি দিয়ে দাদা(ভাই)দের থেকে পৃথক করে দেন। তারপর আমি সেই জমি বিভিন্নজনের কাছে লিজ দিয়ে ২০ হাজার টাকা করে পেতাম। আমার মা মারা গেলে আমার দাদারা জোরপূর্বক আমার জমি এবং বাগান দখল করে নেয়।

আমি সেই সময় (২০১৪ সালে) নাটোর-২ আসনের এমপি শফিকুল-ইসলাম-শিমুলের মাধ্যমে স্থানীয় এমপি আবুল কালাম’র সহায়তায় আমার দাদাদের নিকট থেকে এই জমির বিনিময়ে বছর-বছরে ১০ হাজার টাকা করে দেবে বাগান গুল আমার হেফযতে থাকবে মর্মে আপোষ করি। ২০১৭ সাল পর্যন্ত তারা আমাকে এই টাকা দিয়েছে, এরপর নানা তালবাহানা করে লিজের টাকা না দিয়ে অবৈধ ভাবে আমার বাগানের গাছ কেটে বিক্রি করতে থাকে, আমি কথা বললে আমাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়। এনিয়ে থানাসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তর গুলোতে অভিযোগ দিয়েও কোনো প্রতিকার পাইনি। গণমাধ্যমের মাধ্যমে আমি সকলের সহযোগীতা কামনা করছি।

নাটোর জেলা আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আব্দুল মালেক শেখ বলেন, বিউটি মন্ডল অবিবাহিত অবস্থায় তার পিতার মৃত্যু হওয়ায় হিন্দু দায়ভার আইন অনুযায়ী তিনি তার পিতার সাকুল্য সম্পত্তির অংশ হতে প্রাপ্ত হবেন। তিনি আরও বলেন, বিউটি মন্ডলের বিবাহ না হয়া পর্যন্ত জীবিকা নির্বাহের তাগিদে তার অংশ তিনি অন্যত্র বিক্রি ও ভোগ করতে পারবেন, এতে আইনগত কোনো বাঁধা হবে না বলেন তিনি।

অভিযুক্ত কাত্তিক,সুদর্শন ও প্রশান্ত মন্ডল দাবি করেন আমাদের হিন্দু আইনে বোন কোন জমির অংশ পায় না,তাই দখল করা হয়েছে। তবে বিউটি মন্ডল অবিবাহিত, তাই সে অংশ পবে বলে জানালে প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান তারা।

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের উপজেলা শাখার সভাপতি ও উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি দীপক কুমার কুন্ডু বলেন, আমি ভুক্তভোগীকে চিনি, সে অত্যন্ত অসহায়। সে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা নাটোর শাখা, বাগাতিপাড়া পৌর মেয়র, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, বাগাতিপাড়া মডেল থানা, জেলা আইনজীবি সমিতি ও পুলিশ সুপারসহ বিভিন্ন দপ্তরে ঘুরে ঘুরে এক প্রকার নিরুপায় হয়ে প্রেস কনফারেন্স করেছে। কোথাও কোনো প্রতিকার না পাওয়ায় স্থানীয়দের সহযোগীতা নিয়ে বসে সমাধানের ব্যবস্থা করবেন বলেন তিনি।

বাগাতিপাড়া পৌর মেয়র এ.কে.এম শরিফুল-ইসলাম-লেলিন জানান, বিউটি মন্ডলের স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ গত মে মাসের ৯ তারিখে আমার দপ্তরে দেওয়া হয়, স্থানীয় কাউন্সিলরের মাধ্যমে উভয় পক্ষকে নিয়ে বসে সুষ্ঠ সমাধানের আশ্বাস দেন তিনি।

এ বিষয়ে বাগাতিপাড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নান্নু খান বলেন, ভুক্তভোগী থানায় আসার আগে ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে প্রাথমিক আইনী সহযোগিতা পেয়েছেন। তার লিখিত অভিযোগ পেয়েছি দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Exit mobile version