বাঘায় পদ্মায় গোসলে নেমে নিখোঁজ শিশু ঝিলিকের তিনদিনে সন্ধান হয়নি

আপডেট: এপ্রিল ১৬, ২০২৪, ৯:১৯ অপরাহ্ণ


বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:


রাজশাহীর বাঘায় পদ্মায় গোসলে নেমে নিখোঁজ শিশু ঝিলিক খাতুনের (১০) তিনদিনে সন্ধান মেলেনি। মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বিকাল ৩টা পর্যন্ত তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরিবারের লোকজন নৌকা নিয়ে তার সন্ধানের জন্য পদ্মা নদীতে খুঁজে বেড়াচ্ছেন। তার মা বিউটি বেগম পদ্মার ধারে আহাজারি করছেন। নিখোঁজ ঝিলিক খাতুন চুয়াডাঙ্গার জয়দেবপুরের পাটঘাট গ্রামের মনির উদ্দিনের মেয়ে।

বাঘায় জানা যায়, উপজেলার পদ্মার মধ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়নের চৌমাদিয়ার মানিকের চরে আবদুল মান্নানের মেয়ে হালিমা খাতুনের ইদের পরের দিন বিয়ে খেতে আসে। রোববার (১৪ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার পদ্মার মধ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়নের চৌমাদিয়ার মানিকের চর মসজিদের পদ্মা নদীর ঘাটে গোসলে নেমে ঝিলিক ও জান্নাতী খাতুন নামের দুই শিশু নিখোঁজ হয়। তারা পরস্পর খালাতো বোন।

বাঘায় এদিকে জান্নাতী খাতুন কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার বাংলা বাজার চর এলাকার বাসিন্দা আবুল কাশেম মন্ডলের মেয়ে। তাকে নিখোঁজের ২৪ ঘণ্টা পর সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার পূর্ব দিকে লক্ষ্মীনগর এলাকা থেকে স্থানীয় লোকজন দেখতে পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। বিকালে তাকে নিজ এলাকায় দাফন করা হয়েছে।
এ বিষয়ে চকরাজাপুর ইউনিয়েনের ৩ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মেম্বার পারুল আখতার বলেন, জান্নাতীর মরদেহ ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের তিনদিন গত হতে চলেছে, কিন্তু শিশু ঝিলিকের সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে পরিবারের লোকজন চিন্তায় আছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version