বাঘায় প্লাস্টিকের গোডাউনে পুড়লো প্রায় ১৫ কোটি টাকার মালামাল, আহত ৭

আপডেট: এপ্রিল ৫, ২০২৪, ৬:৪২ অপরাহ্ণ


বাঘা প্রতিনিধি:রাজশাহীর বাঘায় প্লাস্টিকের গোডাউনে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রায় ১৫ কোটি টাকার মালামাল পুড়ে গেছে। আগুন নেভাতে গিয়ে ৭ জন আহত হয়েছে। তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তিন ঘণ্টার চেষ্টায় ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
শুক্রবার (৫ এপ্রিল) বিকাল ৩ টাই উপজেলার তেপুকুরিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে।

বাঘায় প্লাস্টিকের জানা যায়, তেপুকুরিয়া গ্রামে ইনছার আলীর আলিফ ট্রেডার্স নামে ৩৩ শতাংশ জমির উপর প্লাস্টিকের কারখানা গড়ে তুলেন। কারখানায় ক্যারেট, বস্তা, কাগজ, ক্যারেটের কুচা, ক্যারেট ভাঙা মেশিনসহ প্রায় ১৫ কোটি টাকার মালামাল ছিল।

শুক্রবার বেলা ৩ টার দিকে প্লাস্টিকের গোডাউনে আগুনের ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। এরপর মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে সর্বত্র। পরে বাঘা, চারঘাট, পুঠিয়া ও লালপুর সিভিল ডিফেন্স ও ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট তিন ঘন্টার অভিযানে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেন।

বাঘায় প্লাস্টিকের আগুন নেভাতে গিয়ে আহতরা হলেন, গোডাউন মালিক মুনছার আলী (৩৫), ইনছার আলী (৫০), ইয়াজুল ইসলাম (৩৭), আয়ুব আলী (৩৪), রেজাউল করিম (৩৬), আমিরুল ইসলাম (১৯), সবুজ রানা (২২)। এ অগ্নিকান্ডের ঘটনার পর আলিফ ট্রেডার্সের মালিক ইনছার আলী আলী জ্ঞান হারিয়ে ফেলায় তাকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাঘা উপজেলা সিভিল ডিফেন্স ও ফায়ার সার্ভিস কার্যালয়ের স্টেশন অফিসার মিজানুর রহমান বলেন, বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৬ টা পর্যন্ত ৩ ঘন্টা ৪টি ইউনিট কাজ করে আগুন নিয়ন্ত্রন করা হয়।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তরিকুল ইসলাম বলেন, আগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে চারটি ফায়ার স্টেশনে ফোন করে ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. লায়েব উদ্দিন লাভলুও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। তবে অপরণীয় ক্ষতি হয়েছে।

রাজশাহী ফায়ার স্টেশনের উপ-পরিচালক ওহিদুর ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলের পাশে একটি পুকুর থাকায় অতিদ্রুত আগুন নেভানো সম্ভব হয়েছে। এই আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করেছেন বাঘা, চারঘাট, পুঠিয়া ও লালপুর ফায়ার স্ট্রেশানের লোকবল।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ