বাঘায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

আপডেট: জুলাই ১৭, ২০১৭, ১:০০ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


রাজশাহীর বাঘায় বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)। বিয়ের প্রস্তুতিকালে কনের বাড়ি থেকে বর-কনেকে আটক করে আনা হয়। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে হাজির করেন। কনের বয়স কম থাকায় মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার পাকুড়িয়া গ্রামের উত্তম কুমার পালের অপাপ্ত বয়সের মেয়ের (১৬) সঙ্গে দুর্গাপুর উপজেলার কয়াজয়পুর গ্রামের নরেন্দ্র কুমার সরকারের ছেলে অমিত কুমার সরকারের (১৭) বিয়ের প্রস্তুতি চলছিল। এসময় গোপন সংবাদের ভিক্তিতে পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কনে, কনের বাবা উত্তম কুমার, বর অমিত কুমার সরকারসহ নিকট আত্মীয়দের আটক করে থানায় আনা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে কনের প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিতে পারবে না মর্মে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হামিদুল ইসলাম বলেন, তাদের যতদিন বিয়ের বয়স না হবে, ততদিন বিয়ে করতে পারবে না মর্মে ৩শ টাকার স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করিয়ে নেয়া হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ