বাঘায় এক বাড়িতে ২১ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি

আপডেট: নভেম্বর ২৯, ২০১৬, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি
রাজশাহীর বাঘা উপজেরার আড়ানী পৌর বাজারে প্রনব কুমার দোবে মন্টুর বাড়িতে চুরি সংগঠিত হয়েছে। এই ঘটনায় প্রবন কুমার বাদী হয়ে গতকাল সোমবার বাঘা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। তবে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তিনটি প্লাস, বড় তারকাট ও চাকু উদ্ধার করেছে।
পরিবারের দাবি প্রায় ২১ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৩৫ হাজার টাকার প্রাইজব-, নগদ ১০ হাজার টাকাসহ অন্য মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে চোরেরা। খবর পেয়ে আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তার আলী, পুলিশ ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
বাড়ির মালিক প্রনব কুমার দোবে মন্টুর ছোট ভাই সন্টু দোবে বলেন, আমার ভাই এর তিন সন্তান। তারা চাকরির সুবাদে ঢাকায় থাকে। কিছুদিন থেকে আমার ভাই-ভাবী ছেলেদের কাছে বেড়াতে গেছে। আমার কাছে গেটের চাবি থাকে। রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে গেটের তালা খুলে আলো জ্বালানোর জন্য গেটের তালা খুললেও গেট খুলে না। পাশে অরুন কুমার শীল নামের এক ছেলেকে ডেকে গেট খুলছে না মর্মে জানালে অরুন মই নিয়ে এসে ছাদের উপরে উঠে দেখে বাড়ির ৫টি ঘরের তালা ভাঙা। এরপর এলাকাবাসীকে জানালে পুলিশকে খবর দিলে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে আসে। স্থানীয় অরুন কুমার শীল বলেন, কে বা কারা বাথরুমের পাশ দিয়ে উঠে বাড়িতে প্রবেশ করে ঘরের দরজার তালা ভেঙে ঘরে ঢুকে স্বর্ণালংকারসহ মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে।
আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তার আলী বলেন, প্রতিহিংসায় এই চুরির ঘটনা ঘটেছে। তিনি সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবি জানান।
বাড়ির মালিকের বড় ছেলে পলাশ কুমার ও উৎপল কুমার দোবে বলেন, আমরা সংখ্যালঘু হলেও কোন শত্রু নেই। একটিই অপরাধ আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। এছাড়া কোনো শত্রু নেই। দীর্ঘদিন থেকে চাকরির সুবাদে এলাকার বাইরে আছি। বৃদ্ধ বাবা-মা বাড়িতে থাকে। অসুখ দেখাতে আমাদের এখানে এসেছিল। এই সুযোগে বাড়ির তালা ভেঙে ২১ ভরি স্বর্ণালংকার, ৩৫ হাজার টাকার প্রাইজব-, নগদ ১০ হাজার টাকা, দুইটি মোবাইল সেট, কাসার থালাবাসন, পিতলের ছোট দুইটি মূর্তি, ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকার জামাকাপড় চুরি করে নিয়ে গেছে চোরেরা।
এ বিষয়ে বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ আলী মাহমুদ বলেন, চুরির সঙ্গে যারা জড়িত তাদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। আশা করছি দুই/একদিনের মধ্যে চোরদের চিন্তিত করে আইনের আওতায় আনতে পারবো।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ