বাঘায় কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে কাঁঠাল পাতার ব্যবসা জমজমাট

আপডেট: আগস্ট ২৬, ২০১৭, ১:২৭ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


রাজশাহীর বাঘায় বর্ষা আর কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে কাঁঠাল পাতার ব্যবসা জমজমাট হয়ে উঠেছে। উপজেলায় কয়েকজন ব্যক্তি কাঁঠালের পাতা ও গরু-ছাগলের কাঁচা খাদ্য বিক্রি করে সংসার চালাচ্ছে। জানা যায়, উপজেলার আড়ানী, বাঘা, বাউসা, গড়গড়ি, মনিগ্রাম, পাকুড়িয়া বাজারে বিক্রি হচ্ছে কাঁঠালের পাতা। প্রতিদিন ভ্যানে ভর্তি করে উপজেলার এই সব বাজারে আবার কেউ কেউ ফেরি করে বিভিন্ন অলি গলিতে ঘুরে বিক্রি করছে। গরু-ছাগলের কাঁচা খাদ্য বিক্রেতাদের সংখ্যা দিন দিন বেড়ে চলেছে। এ কাজের মাধ্যমে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যভাবে সংসার চালাতে পারছে তারা। বর্তমান ছোট এক মুটো কাঁঠালের পাতার দাম ১০ টাকা এবং বড় এক মুঠো পাতার দাম ২০ টাকা। পাতা বিক্রেতারা এক সময় ভ্যানে ভর্তি করে এনে বাজারে ঘুরে ঘুরে বিক্রি করতো। বর্তমান আড়ানী বাজারের গুড় হাটা, তালতলা বসে পাইকারি ও খুুচরা দরে বিক্রি হচ্ছে। উপজেলায় আরও প্রায় কয়েকজন এই পাতা বিক্রি করে জীবন-যাপন করছেন। তবে অনেকে এখনও ভ্যানে পাতা ভর্তি করে ফেরি করে বিক্রি করছে বলে জানা গেছে।
আড়ানী পৌর বাজারে পাতা বিক্রেতা দুখু মিয়া বলেন, উপজেলায় যত কাঠ ব্যবসায়ী আছে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে এ ব্যবসা চলছে। কাঠ ব্যবসায়ীরা গাছ কিনলে মোবাইল ফোনে আগে যোগাযোগ হয়ে যায় পাতা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে। কাঠ ব্যবসায়ীরা গাছ কিনলে গাছের যে কাঁচা পাতা তা পাইকারি দরে তারা কিনে নেন।
উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এই পাতা এনে বাজারে বিক্রি করেন। বর্তমানে তাদের ব্যবসা আরও জমজমাট হয়ে উঠেছে। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে কোরবানির জন্য কিনে আনা খাসি ছাগলের জন্য পাতা কিনতে হচ্ছে। বছরে দুই বার পাতা ব্যবসার সুযোগ আসে। বর্ষা মৌসুমে এবং কোরবানির ঈদের সময়ে। বছরের অন্য সময়ের তুলনায় এ দুই সময় বেচা-বিক্রি তুলনামূলক বেশি হয়। ছাগলের খাবারের পাশাপশি বিক্রি হচ্ছে গরুর জন্য আখের মাথা ও কাঁচা ঘাস। সব মিলে উপজেলায় ছাগল ও গরু পালনকারীদের বেশ সুবিধা হচ্ছে।
আড়ানী দিযারপাড়া গ্রামের ও আড়ানী পৌর বাজারে পত্রিকা বিক্রেতা কাঁঠাল পাতা ক্রয়কারী আশরাফুল ইসলাম, আড়ানী বাজারের ফজলুর রহমান, চকসিংগা গ্রামের তোফাজল হোসেন বলেন, কোরবানির ছাগলকে খাওয়াতে পাতার খোঁজে আর কাাঁঠাল পাতা বেড়াতে হয় না, নির্দিষ্ট স্থানে গেলে পাতা পাওয়া যায়। দাম একটু বেশি হলেও সহজে পাওয়া যায় এটাই ভাল।
বাঘা উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফি বলেন, স্থানীয়ভাবে কাঁঠালের পাতা বিক্রি হওয়াতে জনগনের সুবিধা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ