বাঘায় গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে শাশুড়ি গ্রেফতার

আপডেট: মার্চ ৬, ২০২১, ৯:০৯ অপরাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি:


রাজশাহীর বাঘায় রিপা খাতুন নামের এক গৃহবধূকে হত্যার মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই মামলায় শাশুড়ি জরিনা বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার (৫ মার্চ) দুপুরে উপজেলার কিশোরপুর গ্রামে এই হত্যার ঘটনা ঘটেছে। তবে স্বামী লালন উদ্দিন পলাতক রয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, বাঘা উপজেলার কিশোরপুর গ্রামের কালু মন্ডলের ছেলে লালন উদ্দিনের (৩২) সাথে চকনারায়ণপুর গ্রামের রিপা খাতুনের (২৮) বিয়ে হয়। সংসার করা অবস্থায় রিপা খাতুন অসুস্থ হয়ে প্রায় দেড় মাস যাবত বিছানাগত ছিলেন। শুক্রবার দুপুরে রিপার স্বামী ও শাশুড়ি মিলে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে মামলা দায়ের করা হয়। এই ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে রিপা খাতুনের শাশুড়ি জরিনা বেগমকে (৬০) গ্রেফতার করা হয়েছে।
এ বিষয়ে রিপা খাতুনের মামা আনারুল ইসলাম জানান, আমার ভাগ্নিকে শ্বাসরোধে হত্যা করে গলাই উড়না পেঁচিয়ে ঘরের তিরের সাথে ঝুলিয়ে রাখা হয়। পরে প্রতিবেশীদের ডাকাডাকি শুরু করে যে, সে আত্মহত্যা করেছে। বিষয়টি তারাই থানাকে অবগত করে। আমরা সেখানে গেলে সন্দেহ হয়। পরে থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক আবদুর রউফ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই মামলায় নিহত গৃহবধূর শাশুড়িকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরিকল্পিত হত্যার অভিযোগ এনে রিপা খাতুনের মামা আনারুল ইসলাম বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।