বাঘায় ছাত্রীর সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগে শিক্ষক শোকজ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৭, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


রাজশাহীর বাঘা উপজেলার খায়েরহাট উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগে ধর্ম বিষয়ের শিক্ষককে শোকজ করা হয়েছে। বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে গত বৃহস্পতিবার শিক্ষককে সাত দিনের মধ্যে শোকজ নোটিশের জবাব দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, বাঘা উপজেলার খায়েরহাট উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রীর সঙ্গে গত ২৯ আগস্ট একই বিদ্যালয়ের ধর্ম বিষয়ের শিক্ষক আবদুল আওয়াল অসদাচরণ করেন। এই বিষয়ে ওই ছাত্রী বাদি হয়ে প্রধান শিক্ষক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৭ সেপ্টেম্বর বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি, প্রধান শিক্ষক, শিক্ষক প্রতিনিধিদের নিয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় শিক্ষক আবদুল আওয়ালকে সাত দিনের মধ্যে শোকজ নোটিশের জবাব দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মঞ্জুর রহমান বলেন, গত ২৯ আগস্ট স্কুল ঈদের ছুটি হয়ে যায়। ওই দিন দশম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে অসদাচরণ করা হয়েছে মর্মে আমার কাছে লিখিত অভিযোগ করে ভুক্তভোগী ছাত্রী। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ধর্ম বিষয়ের শিক্ষককে শোকজ করা হয়েছে। তবে নোটিশটি ডাকযোগে শিক্ষকের বাড়ির ঠিকানায় পাঠানো হয়েছে। জবাব পেলেই  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি কাবিল উদ্দিন বলেন, ঘটনা প্রমাণিত হলে তার শাস্তি হবেই। এই ধরনের শিক্ষকের এই প্রতিষ্ঠানে স্থান হবে না। এদিকে বিষয়টি নিয়ে খুব চাপের মধ্যে আছি। স্কুলের আশেপাশের  লোকজনের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত শিক্ষকের বিচারের দাবিতে আগামী সোমবার স্কুল  ঘেরাও করবে এলাকাবাসী। তবে এই বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক আবদুল আওয়ালের সঙ্গে একাধিকবার চেষ্টা করেও তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ