বাঘায় জমি নিয়ে বিরোধে বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ও লুটপাট

আপডেট: জুন ২, ২০১৭, ১:০২ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


বাঘায় ভাঙচুরকৃত ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি- সোনার দেশ

রাজশাহীর বাঘায় জমি নিয়ে বিরোধের জের জেরে হামলা চালিয়ে মারপিট, বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে প্রতিপক্ষ। এই ঘটনায় ১১ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তাকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ মে উপজেলার নারায়নপুর গ্রামের মৃত পচাই সর্দারের ছেলে আবদুল গনি কালুর বাড়িতে হামলা চালায় প্রতিবেশী মৃত তাজেম আলী সর্দারের ছেলে আবদুস সালাম পিন্টুসহ তাদের লোকজন। এইসময় তারা লোহার রড ও দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশ করে বাড়ি ঘর ভাঙচুর করে। আবদুল গনি কালু তাদের বাধা দিলে মারপিট করে ঘরে আলমারিতে রাখা আড়াই লাখ টাকা, আড়াই ভরি স্বর্ণালংকার লুটপাট ও ঘরের টিভি ফ্রিজসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ভাঙচুর করে। আবদুল গনির ছেলে রতন আলীর স্ত্রী আরজিনা বাধা দিলে তাকেও শ্লীলতাহানির চেষ্টা করা হয় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।
এই ঘটনায় আবদুল গনি কালু বাদী হয়ে উপজেলার নারায়নপুর গ্রামের আবদুস সালাম, রান্টু হোসেন, সেন্টু হোসেন, কালাম সর্দার, হৃদয় হোসেন, সোহেল রানা, জুয়েল আলী, সিজার হোসেন, তৌহিদুল ইসলাম, আফাজ আলী, রনজু আহম্মেদকে আসামী করে গত ২৯ মে আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক তদন্ত চলছে বলে জানান, উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা।
এ বিষয়ে বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ আলী মাহমুদ বলেন, হামলার বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ করতে আসে নি। অভিযোগ করলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হতো।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ