বাঘায় নারী নির্যাতনের মামলায় ব্যাংক কর্মকর্তা গ্রেফতার

আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০১৬, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি



রাজশাহীর বাঘায় নারী নির্যাতনকারী মামলার আসামী ব্যাংক অফিসার এনামুল হককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় তাকে বাঘা সোনালী ব্যাংকের সামনে থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এনামুল আলাইপুর গ্রামের আমিরুল ইসামের ছেলে ও বাঘা শাখার সোনালী ব্যাংকের অফিসার।
জানা যায়, বাঘা শাখার সোনালী ব্যাংকের অফিসার এনামুল হকের ভাই শামীনুর রহমান সিঙ্গাপুর থেকে চার মাস আগে দেশে আসেন। পাশের এলাকার এক নারীর সাথে শামীনুর রহমানের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এই সম্পর্কের কারণে এই নারীকে ১৪ নভেম্বর বাড়িতে আসতে বলে। তার কথামতো এই নারী সন্ধ্যার দিকে তার বাড়িতে আসে। এ সময় শামীনুর রহমান, তার ভাই ব্যাংকের অফিসার এনামুল হক, বাবা আমিরুল ইসলাম বেধম মারপিট করে। পরে তারাই থানাতে খবর দিলে রাতে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় আনে। এরপর তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। পরের দিন ১৫ নভেম্বর উল্লেখিত তিনজনকে অভিযুক্ত করে এই নারী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পরের দিন ১৬ নভেম্বর পুলিশের সহায়তায় এই নারীকে (২০) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পরীক্ষা সম্পূর্ণও করা হয়েছে। এই মামলায় বাঘা শাখার সোনালী ব্যাংকের অফিসার এনামুল হককে বাঘা থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছে।
বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলী মাহমুদ বলেন, নারী নির্যাতন মামলায় এনামুল হককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
অপর দিকে উপজেলার পাকুড়িয়া গ্রামের আব্দুল মোমিন আলীর ছেলে ওয়ারেন্টভূক্ত আসামি শাহাবুল ইসলামকে শনিবার রাতে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ