বাঘায় নির্ধারিত সময়ে শেষ হয়নি মডেল মসজিদ নির্মাণের কাজ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২২, ১:৪৪ অপরাহ্ণ


বাঘা প্রতিনিধি :


রাজশাহীর বাঘায় ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা ব্যয়ে মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করতে পারেনি ঠিকাদার।

অর্থের অভাবে এই কাজ শেষ করা সম্ভব হয়নি বলে জানা গেছে। তবে দীর্ঘদিন ধরে কাজ বন্ধ থাকায় রডে মরিচা ধরেছে।

জানা যায়, উপজেলা পরিষদ চত্বরে ২০১৯ সালের আগষ্টে পুরাতন কেন্দ্রীয় মসজিদ ভেঙে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর করা হয়। তারপর পাবনার সাজিন এন্টারপ্রাইজের ঠিকাদার এ কাজ শুরু করেন।

কিছু কাজ শুরুর পর অর্থের অভাবে নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এ পর্যন্ত কাজ হয়েছে মাত্র গ্রেড বীমের নীচে। এই নির্মাণ কাজ ১৮ মাসের মধ্যে শেষ কথা রয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে এই মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে রাজশাহীর গণপূর্ত অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী হারুনুর রশিদ বলেন, বিভিন্ন সমস্যার কারণে কাজ বন্ধ ছিল। মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু করার পর ফান্ডে টাকারও সমস্যা ছিল।

এই কারণে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করা সম্ভব হয়নি। ইতিমধ্যেই নির্মান কাজের সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। অতি শিগগিরই কাজ শুরু করা হবে। আগামী ২০২৩ সালের জুন মাসে কাজ শেষ করা হবে।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও মসজিদ কমিটির সভাপতি পাপিয়া সুলতানা বলেন, এবিষয়ে গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে কথা হয়েছে। তারা কাজ শুরুর প্রস্তুতি নিয়েছেন।

রাজশাহী জেলা ইসলামিক ফাউনেন্ডশনের পরিচালক মুহাম্মদ জালাল আহমেদ বলেন, মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ কাজের দেখভাল করেন গণপূর্ত বিভাগ। আগে ফান্ডের সমস্যা থাকলেও এখন তা নেই।

উল্লেখ্য, তিনতলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপেপ্লেক্সটি দ্বীনি দাওয়াত কার্যক্রম, ইসলামী সংস্কৃতি চর্চার জ্ঞান অর্জন, গবেষণার সুযোগ, প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাস, যৌতুক, নারীর প্রতি সহিংসতা, আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সংবলিত বিভিন্ন সামাজিক ব্যাধিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য এটি নির্মাণ করা হচ্ছে।