বাঘায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পাঠাগারে জমি দান

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২২, ১০:৫৪ অপরাহ্ণ

আড়ানী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পাঠাগারের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানার হাতে জমির দলিল তুলে দিচ্ছিন এমএম জিয়াউল হক

বাঘা প্রতিনিধি:


রাজশাহীর বাঘায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পাঠাগার প্রতিষ্ঠারের নামে জমি দান করা হয়েছে। সোমবার আড়ানী পৌরসভার পিয়াদাপাড়া গ্রামের এমএম জিয়াউল হক এই জমি দান করেন। পিয়াদাপাড়া গ্রামের তার বাড়ি সংলগ্ন ২ শতাংশ রেজিষ্টিকৃত জমির দলিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে হস্তান্তর করা হয়।

এমএম জিয়াউল হক আড়ানী কিশোর-কিশোরি ক্লাবের আবৃতি শিক্ষক ও রেডিও বড়ালের সম্প্রচার কর্মী। তিনি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পাঠাগার প্রতিষ্ঠা করার এই জমি দান করেন।

এ বিষয়ে এমএম জিয়াউল হক বলেন, আড়ানী এলাকার সুধিজন, শিক্ষক-শিক্ষার্থীর জ্ঞান অর্জনের জন্য আমি জমি ক্রয় করে দান করেছি।

আড়ানী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পাঠাগারের সভাপতি করা হয়েছে উপজেলা নির্বাহি অফিসারকে। পাঠাগারের পক্ষে সভাপতির নামে দান করা জমি রেজিষ্ট্রি করা হয়েছে। সোমবার দানকৃত দলিল দাখিল করা হলে দলিলের অনুমোদন দেন উপজেলার সাব-রেজিস্ট্রার রৌশনারা।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা বলেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপির ডিও লেটারে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে পাঠাগারের সভাপতি করে কমিটি নির্বাচন করে দেওয়া হয়েছে।