বাঘায় যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় ছাত্রীর ভাইসহ আহত ৩, গ্রেফতার ১

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২, ১০:০৭ অপরাহ্ণ

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:


রাজশাহীর বাঘায় ১০ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় ভাইসহ ৩ জনকে মারপিট করে আহত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার মনিগ্রাম বাজারে পাশে এই যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটে। যৌন হয়রানকারী আলী হোসেনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার স্থানীয় স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী মনিগ্রামের এক শিক্ষকের কাছে থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফিরছিল। সে মনিগ্রাম বাজাররের শেষ মাথায় পৌছলে মনিগ্রামের আলম হোসেনের ছেলে আলী হোসেন ও তার দুই বন্ধু মিলে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি শুরু করে। এর প্রতিবাদ করলে তার হাত ধরে টানা হেঁচড়া করা হয়।

এ সময় স্কুল ছাত্রী তার ভাইকে মোবাইল ফোনে ঘটনাটি অবগত করে। এ সময় ছাত্রীর ভাইসহ দুই বন্ধু ঘটনাস্থলে আসলে উল্টো তাদের উপর চড়াও হয়। এক পর্যায়ে যৌন হয়রানিকারী আলী হোসেন তার আরো দুই বন্ধুকে মোবাইল ফোনে ঘটনাস্থলে ডেকে নেয়। যৌন হয়রানকারী আলী হোসেনসহ তার ৫ বন্ধু মিলে ছাত্রীর ভাই ও দুই বন্ধুকে মারপিট করে। তাদের মারপিটে তিনজন আহত হয়েছে। আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এই ঘটনায় স্কুল ছাত্রী বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামি করে বাঘা মামলা দায়ের করে। বাঘা থানা পুলিশ এই মামলার প্রধান আসামি যৌন হয়রানকারী আলী হোসেনকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মনিগ্রাম এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে।

এ বিষয়ে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় একটি যৌন হয়রানির মামলা দায়ের করা হয়। প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলা হাজতে প্রেরণ করা হবে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।