বাঘায় রড দিয়ে মারধরের ঘটনার প্রধান আসামিসহ গ্রেফতার ৬

আপডেট: মে ৬, ২০২২, ৯:০১ অপরাহ্ণ

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:


রাজশাহীর বাঘায় লোহার রড দিয়ে এক যুবককে মারধরের ঘটনায় প্রধান আসামিসহ বিভিন্ন মামলার ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। বুধবার রাতে বাঘা থানা পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে।

জানা গেছে, উপজেলার মীরগঞ্জের আতারপাড়া গ্রামের মৃত কামালউদ্দীনের ছেলে রোকনউদ্দীন গত ১৮ এপ্রিল বিনোদপুর মসজিদ থেকে তারাবির নামাজ আদায় শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। তিনি মীরগঞ্জ বাজারের রুহুল আমিনের আমের আড়তের কাছে পৌঁছলে ভানুকর গ্রামের সোহেল রানা, মিন্টু হোসেন, শিমুল হোসেন, লালনউদ্দিন, সাগর হোসেন, সবুজ আলীসহ ১০-১৫ জনের একটি দল লোহার রড, বাঁশের লাঠি নিয়ে তার পথরোধ করে। এ সময় তাকে পিটিয়ে জখম করে। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় রোকন উদ্দিন বাদী হয়ে বাঘা থানায় একটি মামলা করেন। এই মামলার প্রধান আসামি সোহেল রানাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোহেল রানা উপজেলার মীরগঞ্জের ভানুকর গ্রামের আবদুর রবের ছেলে।

এদিকে বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত গ্রেফতার আসামিরা হলো-সিংড়ার সৌলাচুড়া গ্রামের আসাদুজ্জামন, রায়হান সওদাগর, বড়ছয়ঘটি গ্রামের রশিদুল ইসলাম, চকসিংগা গ্রামের জুবায়ের হোসেন, ছাতারী গ্রামের আবদুল মান্নান।

এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন বলেন, গ্রেফতারদের বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।