বাঘায় সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে পশুর হাট

আপডেট: মার্চ ২৫, ২০২০, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গণজমায়েত থেকে দূরে থাকার কথা বলা হলেও, রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানীতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে পশুহাট বসেছে। এছাড়া কেনাবেচা হয়েছে সবজিসহ সকল নিত্য প্রয়োজনীয় মালামাল।
জানা যায়, সপ্তাহের প্রতি শনিবার ও মঙ্গলবার উপজেলার আড়ানীতে এই হাট বসে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে উপজেলা জুড়েই গণজমায়েত হয় এমন ধরনের হাট বন্ধ ঘোষণা করেন উপজেলা প্রশাসন। কিন্তু সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে আড়ানী হাটে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে পশু কেনাবেচা হয়।
গত সোমবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উপজেলার সকল হাট বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হয়। সরকারের পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত গণজমায়েত হয় এরকম হাট বন্ধ থাকবে। তারপরও এ হাটে পশু বেচাকেনা হয়। করোনাভাইরাস ছড়ানোর কারণ, প্রতিকার ও তার প্রতিরোধের উপায় জানিয়ে উপজেলা জুড়ে চলছে রিফলেট বিতরণ, মাইকিং, প্রচার প্রচারণা।
হাটের ইজারাদার একরামুল হক বলেন, সরকারিভাবে নিষেধ থাকার করণে হাট বসানো হয়নি। ঝুঁকিপূর্ণ জেনেও জীবিকার তাগিদে কিছু ব্যবসায়ী দূর থেকে হাটে এসেছিল।
উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শাহিন রেজা বলেন, আড়ানী হাটে গণজমায়েতের কথা শুনে সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছি। তবে সবাইকে সচেতন করে গণজমায়েত কমানো হয়েছে।