বাঘায় স্কুলছাত্রী অপহরণের অভিযোগ

আপডেট: June 1, 2020, 9:15 pm

বাঘা প্রতিনিধি:


রাজশাহীর বাঘায় এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ পওয়া গেছে। অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে ৬ দিনেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর পিতা বাদি হয়ে বাঘা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগে জানা যায়, স্কুল ছাত্রী কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার এক স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী। সে গত ২৩ মে বাঘা উপজেলার পীরগাছা গ্রামে এক আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে আসে। পরে ২৮ মে সন্ধ্যায় স্কুল ছাত্রী আত্মীয়র সঙ্গে স্থানীয় পীরগাছা বাজারের যায়। সেখান থেকে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার সোনাতলা গ্রামের টিংকু হোসেন নামের এক যুবকসহ ৪/৫ জনে দুটি মাটরসাইকেল যোগে জোরপূর্বক ওই স্কুল ছাত্রীকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।
ওই দিন রাতে স্কুল ছাত্রীর পিতা বাদি হয়ে দৌলতপুর উপজেলার সোনাতলা গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে টিংকু (২৫), মহিবুল ইসলামের ছেলে সেলিম (২৫), শুকচান আলীর ছেলে সোহাগ (২০), মৃত আবেদ আলীর ছেলে পাপ্পু (২২), পীরগাছা গ্রামের মৃত ইমাজ উদ্দিনের ছেলে সুলতান আলী (৩৬) ওরফে জোয়াদ আলী, বাজুবাঘা নতুনপাড়া গ্রামের গোলাম হোসেনসহ (৫০) ৭ জনের নামে বাঘা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
এ বিষয়ে স্কুল ছাত্রীর পিতা বলেন, ৬ দিনেও আমার মেয়েকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। গত ৩০ মে আমার মেয়ে মুঠোফোনে জানায় তারা আমাকে আটকিয়ে রেখেছে। এতটুকু বলতে ফোন কেড়ে নেয়। পরে বারবার ওই মুঠোফোন চেষ্টা করেও বন্ধ পাওয়া যায়।
বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা ও আসামিদের আটক করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ