বাঘায় হাত মুখ বেধে টাকা ও স্বর্ণাকার লুট

আপডেট: আগস্ট ৮, ২০২২, ১২:৫৮ অপরাহ্ণ

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি :


রাজশাহীর বাঘায় হাত মুখ পা বেধে টাকা, স্বর্ণাকার, জামা কাপড় লুট করে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার আড়ানী বাজারের মাস্টারপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, আড়ানী বাজারের মাস্টারপাড়া এলাকার মৃত আজিজুল হকের ছেলে বাবুল আক্তার রোববার বিকেলে তার অষ্টম শ্রেণিতে পড়–য়া সন্তানকে রেখে ডাক্তার দেখাতে যান। এই সুযোগে তিন যুবক মোবাইল নম্বর নেওয়ার অজুহাতে বাড়িতে প্রবেশ করে।

এ সময় তাকে রশি দিয়ে হাত পা ও কাপড় দিয়ে মুখ বেধে ১৪ আনার দুটি স্বর্ণের চেইন, ৬০ হাজার টাকা, দেড় আনার একটি আংটি লুট করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় বাবুল আক্তার বাদী হয়ে বাঘা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে বাবুল আক্তারের স্ত্রী কামরুন্নাহার শিখা বলেন, আমার ছোট মেয়ে কয়েক দিন থেকে অসুস্থ। অষ্টম শ্রেণিতে পড়–য়া বড় ছেলেকে রেখে তৃতীয় শ্রেণিতে পড়–য়া মেয়ের চিকিৎসার জন্য বাঘা চন্ডিপুর ডাক্তারের কাছে যায়।

এ সময় অপরিচিত তিন যুবক বাড়িতে ঢুকে ছেলেকে রশি ও কাপড় দিয়ে হাত মুখ পা বেধে টাকা, স্বর্ণাকার, জামা কাপড় লুট করে নিয়ে যায়। তবে বাড়ির পেছনে কিছু দিন থেকে মাদক সেবনের আড্ডা চলছিল বলে জানান তিনি।

রাত ৮টার দিকে বাড়িতে এসে দেখি বাধা অস্থায় ছেলে ঘরের কোনে পড়ে আছে। ঘটনাটি পুলিশকে অবগত করা হলে তাৎক্ষনিক এসে তদন্ত করেন।
বাবুল আক্তার বাঘা সাবরেজিষ্ট্র অফিসের দলিল লেখক।
বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এ বিষয়ে খবর পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। মাদক সেবনকারীরা এ ঘটনা করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।