বাঘায় ৯ দিন পর অফিস খুলে সদস্যদের মাঝে জনতা সমিতি

আপডেট: এপ্রিল ৫, ২০১৭, ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


নয়দিন বন্ধ থাকার পর জনতা সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লি. মঙ্গলবার খোলা হয়েছে। অফিস খুলে সদস্যদের নিয়ে আলোচনা করা হয়। সদস্যের গচ্ছিত টাকা ফেরত দেওয়াসহ পূর্বের ন্যায় প্রতিষ্ঠান চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন রাজশাহী ব্রাঞ্চ ম্যানেজার আকতার হোসেন।
আয়োজিত সভায় ব্রাঞ্চ ম্যানেজার বলেন, শাখা ব্যবস্থাপকের অনিয়মের কারণে কোন নোটিশ না দিয়ে অফিস সাময়িক অফিস বন্ধ রাখা হয়েছিল। সভায় সকলের সহযোগিতা কামানা করে সদস্যদের বিচলিত না হওয়ার জন্য আহবান জানান। তবে সাময়িক অসুবিধার কারণে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। তবে কেউ টাকা রাখতে না চাইলে পর্যায়ক্রমে তা ফেরত দেওয়া হবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা রুহুল আমিন, বাঘা থানার উপ পরিদর্শক তারিকুজ্জামান তারিক, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মহিবুর রহমান, সাংবাদিক আব্দুল লতিফ মিঞা, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোকাদ্দেস আলীসহ সমিতির সদস্য।
উল্লেখ্য গত ২৭ মার্চ হঠাৎ অফিস বন্ধ করে গা ঢাকা দেয় রাজশাহীর বাঘা শাখার জনতা সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড। তারপর থেকে প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজারের, সহকারি ম্যানেজার ফিল্ড কর্মীরসহ মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এতে হতাশায় ভেঙে পড়েন সদস্যরা।
কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার খন্দকার আবুল কালাম আজাদ ২০০৭ সালের মে মাসে জনতা মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি নামে প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু করেন। পরে ২০১২ সালের ২ অক্টোবর বাঘা জনতা সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড নামে উপজেলার আঞ্জুমান শপিং কমপ্লেক্সের দ্বিতীয় তলা ভাড়া নিয়ে কার্যক্রম শুরু করে।
প্রতিষ্ঠানের সদস্য সংখ্যা ৬০৩ জন। সঞ্জয় এক কোটি ৬৩ লক্ষ ৭৪ হাজার ২৮০ টাকা। ব্যাংকে রয়েছে ১০ হাজার টাকা। মজুদ রয়েছে ৪৫ হাজার ৩৬৯ টাকা বলে জানা গেছে।