‘বাঙালি সংস্কৃতি বিলুপ্ত করার চক্রান্ত চলছে’ রাবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধনে বক্তারা

আপডেট: নভেম্বর ১৫, ২০১৬, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক



‘সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের অংশগ্রহণে এদেশ স্বাধীন হয়েছে। দেশের পতাকা বীরদর্পে উড়াতে পারছি। কিন্তু সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার কারণে সেই স্বাধীনতা ভুলণ্ঠিত হচ্ছে। সাম্প্রদায়িক হামলার মধ্য দিয়ে বাঙালি সংস্কৃতি বিলুপ্ত করার চক্রান্ত চলছে। সময় এসেছে রুখে দাঁড়াবার। এখন যদি সোচ্চার হতে না পারি তাহলে বাঙালি সংস্কৃতি বিলুপ্ত হতে বাধ্য।’
নাসিরনগরসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় হামলার প্রতিবাদে গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত মানববন্ধনে এসব কথা বলেন রাবি শিক্ষক সমিতির সধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাহ্ আজম। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এ কর্মসূচির আয়োজন করে।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, নাসিরনগরে যাদের ওপর হামলা চলানো হয়েছে তাদের সংখ্যালঘু বলা হচ্ছে। কিন্তু যারা হামলা চালিয়েছে তারাই মূলত সংখ্যালঘু। কারণ, যারা হামলার শিকার তারা আমাদের সভ্য সমাজে বসবাস করছে। তাই সংখ্যাগুরু ও সংখ্যালঘুর যে মানদ- দাঁড় করানো হয়েছে, তা আমরা মানি না। আমাদের উচিত মানবতার পতনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া। আমরা জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে বাঙালি সংস্কৃতিকে রক্ষা করতে হবে।’
শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক শহীদুল্লাহ্ বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রের ভিত্তি হলো একটি অসাম্প্রদায়িক চেতনা। এ চেতনার ওপর যে আঘাত করে সে আমাদের শত্রু। তিনি যে রাজনৈতিক মতাদর্শেরই হোক।’ সরকারের কাছে এসকল হামলায় জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন তিনি।
মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক অধ্যাপক রকীব আহমদ, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, দর্শন বিভাগের অধ্যাপক এস এম আবু বকর, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান, ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার প্রমুখ।