বাজারে মাছের সরবরাহ স্বাভাবিক, বেড়েছে ডিমের দাম

আপডেট: জুলাই ৮, ২০১৭, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


বাজারে সবজির পাশাপাশি মাছের সরবরাহ বেড়েছে। সবজি ও মাছের দাম স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু ঈদের পর থেকে মুরগির দাম বেড়েছে। তবে গরুর ও খাসির গোশতের দামে কোন পরিবর্তন হয় নি। আগের দামে বিক্রি হচ্ছে বাজারে। ঈদের পর থেকে কয়েক দফায় বাজারে ডিমের দাম বেড়েছে।
গতকাল শুক্রবার সাহেববাজার মাস্টার পাড়া এলাকার ব্যবসায়ী বিপ্লব জানান, বাজারে প্রতিকেজি আলু ১২ থেকে ১৮ টাকা, পেঁপে ১৫ থেকে ১৮ টাকা, পটল ১৬ টাকা, ঝিঙ্গা ১৫ টাকা, ঠেঁরস ১৫ থেকে ২০ টাকা, বেগুন ২০ থেকে ২২ টাকা, বরবটি ২০ থেকে ২৫ টাকা, করল্লা ২০ টাকা, প্রতি হালি লেবু ৮ থেকে ১২ টাকা, প্রতিকেজি মিষ্টি কুমড়া ১৬ থেকে ২০ টাকা, শসা ২০ টাকা ও প্রতি পিস লাউ ১০ থেকে ১৫ টাকা, কচু ৩০ টাকা, কাঁকরোল ২৫ টাকা ও চিচিঙ্গা ১৫ টাকায় বিক্রি হয়। এছাড়া বাজারে প্রতিকেজি মরিচ ৭০ থেকে ৮০ টাকা, দেশি পিঁয়াজ ২৪ থেকে ২৬ টাকা, আদা ৮০ থেকে ১২০ টাকা ও রসুন ৯০ থেকে ১১০ টাকায় বিক্রি হয়।
নগরীর সাহেববাজার মাছ আড়তের মাছ ব্যবসায়ী মমিন জানান, প্রতিকেজি রুই মাছ ২৬০ থেকে ৩৫০ টাকা, কাতল মাছ ২৮০ থেকে ৩৪০ টাকা, গ্লাসকাপ ১৮০ থেকে ২২০ টাকা, তেলাপিয়া মাছ ১২০ থেকে ১৬০ টাকা, কই মাছ ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা, মিরকা মাছ ১৬০ থেকে ১৮০, জাপানি ১৩০ থেকে ১৬০ টাকা বিক্রি হয়।
এদিকে নদীর প্রতিকেজি কাটা পাতাসি ও বাঁশপাতা ৮শ থেকে এক হাজার টাকা, পবা ৭০০ টাকা, বাইম ৬০০ টাকা, আইড় মাছ ও টেংরা মাছ ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা, বোয়াল ও জিওল ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা, দেশি মাগুর ৬০০ টাকা, ইলিশ মাছ ৮০০ থেকে ১২শ টাকা, চিংড়ি ৮০০ থেকে ১ হাজার টাকা, ময়া মাছ ৪০০ টাকা ও মহলা মাছ ৪০০ থেকে ৬০০ টাকায় বিক্রি হয়।
এদিকে গরুর গোশত বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতিকেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৪৮০ থেকে ৪৯০ টাকা এবং খাশির গোশত ৭০০ টাকায় বিক্রি হয়। এদিকে বাজারে সোনালি মুরগি ২০০ টাকা, ব্রয়লার মুরগি ১৫৫ থেকে ১৬০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৮০ টাকা, কর্ক মুরগি ১৭০ থেকে ১৮০ টাকায় বিক্রি হয়। এছাড়া প্রতিহালি মুরগির ডিম ২৪ থেকে ২৮ টাকায় বিক্রি হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ