বাণিজ্য সক্ষমতা উন্নয়নে পাঁচ লাখ ডলার দেবে এডিবি

আপডেট: ডিসেম্বর ১৬, ২০২০, ৭:২৪ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


ব্যবসায় প্রতিযোগিতায় উন্নতি ও আন্তঃআঞ্চলিক বাণিজ্য প্রসারের জ্ঞানভিত্তিক কাজে বাংলাদেশকে পাঁচ লাখ ডলার অনুদান সহায়তা দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক-এডিবি।
সম্প্রতি এই অনুদান অনুমোদন করা হয়েছে বলে বুধবার এডিবির ঢাকা কার্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।
বাংলাদেশের অর্থনৈতিক পরিবর্তনে কৌশলগত বিষয়গুলোর জ্ঞানভিত্তিক সমাধানে ২০১৮ সালে এডিবি ২০ লাখ ডলার অনুদান অনুমোদন করেছিল। পাঁচ লাখ ডলার সেই সহায়তার অতিরিক্ত হিসেবে দেওয়া হবে।
এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন পারকাশ বলেন, “রপ্তানি বৈচিত্রকরণ ও স্থানীয় সম্পদের ব্যবহার বাড়ানোর পাশাপাশ প্রবৃদ্ধি ও বর্তমান উন্নয়নের গতি ধরে রাখতে বাংলাদেশকে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ এবং আন্তঃদেশীয় বাণিজ্য উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়াতে হবে।
“বর্তমানে ডুয়িং বিজনেস সূচকে ১৯০টি দেশের মধ্যে ১৬৮তম স্থানে থাকা বাংলাদেশের এক্ষেত্রে উন্নতির ব্যপক সুযোগ রয়েছে। সম্পদের নিবন্ধন, অনলাইন ব্যবসার নিয়ম, কর ব্যবস্থা এবং চুক্তির নিয়ম আধুনিকায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ ডুয়িং বিজনেসের বিভিন্ন সূচকে উল্লেখযোগ্য উন্নতি করতে পারে।”
বাংলাদেশ সরকারও ডুয়িং বিজনেস সূচকে উন্নতি করতে আগ্রহী জানিয়ে তিনি বলেন, “বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, শিল্প এবং প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে ডুয়িং বিজনেস র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের উন্নতির জন্য একটি কার্যকর নীতি প্রণয়নে সহায়তা করবে এই জ্ঞানভিত্তিক সহযোগিতা।
“এছাড়া এটি বিনিয়োগ এবং সরবরাহ ব্যবস্থার সুযোগ অনুসন্ধানে উচ্চমানের জ্ঞান এবং নীতি প্রণয়নে সহায়তা করবে, যাতে দক্ষিণ এশীয় উপ-আঞ্চলিক বাণিজ্যিক সহযোগিতার (সাসেক) আওতায় বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের আন্তঃআঞ্চলিক বাণিজ্যের প্রসার ঘটে।”
এ অঞ্চলের বিভিন্ন দেশ, বিশেষ করে চীন ও ভারতের সমকক্ষ হতে ডুয়িং বিজনেস র‌্যাংকিংয়ের বিভিন্ন সূচকে বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নতি করতে হবে। যেসব সূচকে উন্নতি করতে হবে, সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে চুক্তি কার্যকর, সম্পদের নিবন্ধন, বিদ্যুতের প্রাপ্তি, সীমান্ত বাণিজ্য, আর্থিক অসচ্ছলতা দূর করা, কর পরিশোধ, নির্মাণকাজের অনুমতি, ব্যবসা শুরু এবং ঋণপ্রাপ্তি।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ