বাথরুমে গোপন ক্যামেরায় গোসলের ভিডিও ধারণ, ১৩ বছরের সাজা

আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০২২, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

রাজশাহী প্রতিনিধি:


বাথরুমে গোপন ক্যামেরা বসিয়ে এক নারীর গোসলের ভিডিও ধারণের দায়ে এক ব্যক্তিকে ১৩ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া তাঁকে আরও ১০ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ১৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো. জিয়াউর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।
সাজা পাওয়া ব্যক্তির নাম দেওয়ান আরিফুর রহমান (৩৮)। তিনি গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বাসিন্দা। তবে রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, পূর্বপরিচিত হওয়ায় বগুড়া উপশহর এলাকার এক বাড়িতে আরিফুরের যাতায়াত ছিল। ২০২০ সালে তিনি ওই বাড়ির বাথরুমে একটি গোপন ক্যামেরা বসান। ওই ক্যামেরা দিয়ে তিনি ওই বাড়ির গৃহকর্ত্রীর গোসলের ভিডিও ধারণ করেন। সে ভিডিও তিনি ওই নারীকে পাঠিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করেন। ওই নারী তাঁকে ৫ লাখ টাকাও দেন। কিছুদিন পর আরিফুর আবারও ওই নারীর কাছে টাকা চান। টাকা না দিলে ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন তিনি। পরে বগুড়া সদর থানায় ২০২১ সালের ২ এপ্রিল ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) ইসমত আরা বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের তিনটি ধারায় আরিফুর দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। আর ভুক্তভোগীকে জরিমানার টাকা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, দেওয়ান আরিফুরকে ২০২১ সালের ১০ মে গাইবান্ধা থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরে তিনি আদালত থেকে জামিন পান। জামিন শেষে তিনি পলাতক আছেন। গ্রেপ্তারের পর থেকে তাঁর সাজা কার্যকর হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ