বার্লিনের ক্রিসমাস মার্কেটে লরি নিয়ে ‘হামলা’, নিহত ১২

আপডেট: ডিসেম্বর ২১, ২০১৬, ১২:০২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



জার্মানির রাজধানী বার্লিনে ব্যস্ত ক্রিসমাস মার্কেটের ভিড়ে লরি ‘চালিয়ে দেয়ার’ ঘটনায় অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছেন; আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪৮ জন।
স্থানীয় সময় সোমবার রাত সোয়া ৮টার দিকে ব্রাইটশেইডপ্লাৎজের এ ঘটনাকে একটি ‘হামলা’ হিসেবেই দেখছেন জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী টোমাস মাইজিরে।
আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে আসা ভিডিওতে দেখা যায়, দোকানপাট ভেঙে জিনিসপত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে; তার মাঝে দাঁড়িয়ে আছে একটি কালো রংয়ের আর্টিকুলেটেড লরি, যার উইন্ড শিল্ড ফেটে চৌচির। বিরাট ওই বাহনের একপাশের চাকার নিচে আটকে আছে একটি তোবড়ানো ক্রিসমাস ট্রি। ওই লরির চালক সন্দেহে একজনকে আটক করেছে বার্লিনের পুলিশ। গাড়ির ভেতরে আরেকজনকে পাওয়া গেছে মৃত অবস্থায়।
বিবিসি লিখেছে, সন্ধ্যার পর ইস্পাত বহনকারী ওই ট্রাক যখন বাজারে ঢুকে পড়ে, কাঠের ছোট ছোট দোকানগুলো তখন পর্যটক আর স্থানীয় ক্রেতাদের ভিড়ে জমজমাট। ওই ভিড় মাড়িয়েই লরি নিয়ে ৫০ থেকে ৮০ মিটার এগিয়ে যায় চালক। এমা রাশটন নামে এক পর্যটক সিএনএনকে বলেছেন, প্রথমে তারা বিকট শব্দ শুনতে পান। তারপর একটি আর্টিকুলেটেড লরিকে দোকান ভেঙে মানুষের ওপর দিয়ে ছুটে আসতে দেখেন। সে সময় ট্রাকটির গতি ঘণ্টায় অন্তত ৬৫ কিলোমিটার ছিল বলে তার মনে হয়েছে।
মাইক ফক্স নামের আরেক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মাত্র তিন মিটার সামনে দিয়ে ট্রাকটিকে ছিটকে বেরিয়ে যেতে দেখেন তিনি। “এটা পরিকল্পিতভাবে ঘটানো হয়েছে, কোনো সন্দেহ নেই,” বলেন এই ব্রিটিশ পর্যটক।
গত জুলাইয়ে ফ্রান্সের নিস শহরে একটি উৎসবের ভিড়ে ট্রাক চালিয়ে দিয়ে ৮৬ জনকে হত্যা করা হয়। পরে পুলিশের গুলিতে নিহত হন হামলাকারী ট্রাকচালক। মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস ওই হামলার দায় স্বীকার করে। ওই ঘটনার ছয় মাসের মাথায় ক্রিসমাসের উৎসবের মৌসুমে বার্লিনে দৃশ্যত একই ধরনের ঘটনায় জার্মানিতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, আহতদের মধ্যে অন্তত চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা মের্কেল এই হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। জার্মান সংবাদ মাধ্যমের বরাতে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ওই লরির চালক আফগানিস্তান কিংবা পাকিস্তান থেকে আসা একজন শরণার্থী, যিনি গত ফেব্রুয়ারিতে জার্মানিতে আশ্রয় নেন।
বার্লিন পুলিশের মুখপাত্র ভিনফ্রাইড ভেনজেল জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে ভিক্টোরি মনুমেন্টের কাছ থেকে ওই চালককে আটক করা হয়। পুলিশের ধারণা পোল্যান্ডে নিবন্ধিত ওই লরি কোনো একটি কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে চরি করা হয়েছিল। ওই গাড়িতে যার লাশ পাওয়া গেছে, তিনিও একজন পোলিশ নাগরিক।
ওই লরির মালিক এরিয়েল জুরাভস্কি জানিয়েছেন, তারই একজন কাজিন ওই গাড়ি চালাতেন, যাকে তিনি ছোটবেলা থেকে চেনেন এবং তার ওপর আস্থা রাখেন। সোমবার বিকাল থেকে তার কোনো খোঁজ তিনি পাচ্ছিলেন না।
ডয়চে ভেলে লিখেছে, ঘটনাস্থলের ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে শেয়ার না করতে সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে পুলিশ৷
বার্লিনের মেয়র মিশেল ম্যুলার জানিয়েছেন, মঙ্গলবার স্থানীয় দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে তদন্তের সর্বশেষ তথ্য তুলে ধরা হবে।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ