বিমানের জ্বালানি মূল্যের রেকর্ড বৃদ্ধি, টিকিটের দাম বাড়ার আশঙ্কায় যাত্রীরা

আপডেট: মে ১, ২০২২, ৯:১৮ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:


ইউক্রেন যুদ্ধের আঁচে রবিবার রেকর্ড বাড়ল বিমানের জ্বালানির দাম। পেট্রল-ডিজেলের দাম হু হু করে বাড়ার পরে গত ২৫ দিনে জ্বালানির দাম আর বাড়েনি। কিন্তু এবার একধাক্কায় ৩.২২ শতাংশ বাড়ল অ্যাভিয়েশন টারবাইন ফুয়েলের দাম। যা রেকর্ড বৃদ্ধি।
চলতি বছর এই নিয়ে নবম বার বাড়ল এটিএফের দাম। উল্লেখ্য, পেট্রল-ডিজেলের মতো দৈনিক বা আন্তর্জাতিক বাজারের হিসেবে পরিবর্তিত হয় না বিমানের জ্বালানির মূল্য। প্রতি মাসের ১ ও ১৫ তারিখে এই দাম পরিবর্তিত হয়। রোববারের হিসেব বলছে রাজধানীতে প্রতি কিলোলিটারের দাম বেড়েছে ৩ হাজার ৬৪৯.১৩ টাকা। এবার এক কিলোলিটার এটিএফ কিনতে সংস্থাগুলির খরচ হবে ১ লক্ষ ১৬ হাজার ৮৫১ টাকা ৪৬ পয়সা। একই সঙ্গে মুম্বই, কলকাতা ও চেন্নাইয়ে এই জ্বালানির দাম দাঁড়াল যথাক্রমে ১ লক্ষ ১৫ হাজার ৬১৭ টাকা ২৪ পয়সা, ১ লক্ষ ২১ হাজার ৪৩০ টাকা ৪৮ পয়সা ও ১ লক্ষ ২০ হাজার ৭২৮ টাকা ৩ পয়সা। রাজ্যভিত্তিক এই দামের ফারাক নির্ভর করে রাজ্যভিত্তিক করের উপরে।
বিমানের খরচের প্রায় ৪০ শতাংশই জ্বালানির খাতে ব্যয় হয়। স্বাভাবিক ভাবেই জ্বালানির রেকর্ড বৃদ্ধির পরে প্রশ্ন উঠছে, এর কি প্রভাব পড়বে বিমানের ভাড়ার উপরে? গত বৃহস্পতিবার রাতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় বিমানের জ্বালানির উপরে শুল্ক কমানোর দাবি জানিয়েছিলেন কেন্দ্রকে। তিনি টুইটারে লিখেছিলেন, রাজ্যগুলির দিকে আঙুল না তুলে বরং বিমান ভাড়া কমানোর দিকেই পদক্ষেপ করুক মোদি সরকার। আর এজন্য অতিরিক্ত শুল্ক ও আবগারি শুল্কের পাশাপাশি বিমানের জ্বালানির উপরে শুল্ক কমানোর দাবি জানিয়েছিলেন তিনি। এর মধ্যেই রোববারে বেড়ে গেল জ্বালানির দাম।
আসলে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানির দাম বাড়ছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের আবহে। আর সেই জের পড়েছে ভারতের বাজারেও। তেলের মোট চাহিদার ৮৫ শতাংশই নয়াদিল্লিকে আমদানি করতে হয় অন্য দেশ থেকে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ