বিরল স্থলবন্দরে ভারত-বাংলাদেশ পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু

আপডেট: এপ্রিল ৯, ২০১৭, ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ

দিনাজপুর প্রতিনিধি



দীর্ঘ এক যুগ অপেক্ষার পর দিনাজপুরের বিরল স্থলবন্দরে রেলপথ দিয়ে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার আমদানি-রফতানি কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হলো।
গতকাল শনিবার ভারতের দিল্লি শহরের হায়দারাবাদ হাউজে ওই অনুষ্ঠানে ভারতে সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এর উদ্বোধন করেন। ভারতের রাধীকাপুর থেকে হাইস্পিড ডিজেল বোঝাই একটি মালবাহী ট্রেন ৪২টি ওয়াগন নিয়ে বাংলাদেশের বিরল রেল স্টেশনে এসেছে।
বিরল রেল স্টেশনের মাস্টার মাসুদ পারভেজ বলেন, ভারতের রাঙ্গাপানি জ্বালানী ডিপো থেকে ২ হাজার ২০০ মেট্রিক টন হাই স্পিড ডিজেল (জ্বালানী) পদœা অয়েল কোম্পানী লিমিটেড আমদানি করে ভারতের রাধীকাপুর রেলস্টেশনে নিয়ে আসে। সেখান থেকে বাংলাদেশের রেলওয়ের একটি ইঞ্জিন ডিজেল ভর্তি ৪২ টি ওয়াগন নিয়ে মালবাহী ট্রেনটিকে বিরল রেলস্টেশনে গতকাল শনিবার দুপুরে নিয়ে আসে।
এ সময় বিরল রেলস্টেশনে লালমনিরহাট রেলওয়ে বিভাগীয় ম্যানেজার নাজমুল ইসলাম, বিভাগীয় প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম, বিভাগীয় মেকানিক্যাল প্রকৌশলী মমতাজুল ইসলাম, দিনাজপুর কাস্টমসের সহকারি কমিশনার তাহেরুল ইসলাম খান, বিরলউপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ. বি. এম রওশন কবীর, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি এম এ লতিফ, সম্পাদক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান, সহসভাপতি সবুজার সিদ্দক সাগর, পদœা অয়েল কোম্পানী লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার (মার্কেটিং) আবু সালেহ ইকবাল, সি এন্ড এফ বিরলের খান এন্ড সন্স এজেন্সির শহিদুল ইসলামসহ স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ, ২০০৫ সালে বিরল বন্দর দিয়ে বাংলাদেশ-ভারত রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকায় আমদানি রফতানি বন্ধ থাকে। দীর্ঘ ১২ বছর অপেক্ষার পর এই বন্দর দিয়ে আবারও শনিবার থেকে আমদানি রফতানি শুরু হলো।