বিশুদ্ধ পানির অভাবে ভুগছে পদ্মার ১৪ চরের মানুষ

আপডেট: আগস্ট ২৪, ২০১৭, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ

আমানুল হক আমান, বাঘা


রাজশাহীর বাঘায় পদ্মার চরে বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দিয়েছে। প্রায় দুই হাজার পরিবার দুই সপ্তা যাবৎ পানিবন্দি অবস্থায় জীবনযাপন করছেন। বিশুদ্ধ পানির টিউবওয়েল বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় এ সঙ্কটে পড়েছেন তারা।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, দিয়াড়কাদিরপুর একটি চর। এই চরে ১৯টি পরিবার বসবাস করে। দুই সপ্তা যাবৎ তারা পানিবন্দি হয়ে আছে। এই চরে দুইটি টিউবয়েল। এরমধ্যে একটি অকেজো, আরেকটি পানির নিচে তলিয়ে আছে। এই টিউবয়েল থেকেই তারা পানি সংগ্রহ করে ব্যবহার করছেন। তাদের মতো আরো ১৪টি চরের একই অবস্থা। চারদিকে পানি। বাড়িসহ সব জমির ফসল পানিতে ডুবে গেছে। পদ্মার ১৫টি চরে প্রায় ২০ হাজার মানুষের বসবাস করে। এর মধ্যে দিয়াড়কাদিপুর চরে জনসংখ্যা প্রায় অর্ধশতাধিক।
চকরাজাপুর ইউনিয়নের এই ওয়ার্ড সদস্য জালাল উদ্দিন বলেন, আমার বাড়িতে পানি উঠায় বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দিয়েছে। দুইটি টিউবয়েলের মধ্যে একটি নষ্ট, আরেকটি অর্ধেকের বেশি অংশ পানির নিচে তলিয়ে আছে। উপায় নেই, এখান থেকেই পানি সংগ্রহ করে ব্যবহার করছি।
চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিযুল আযম বলেন, পদ্মার চরের প্রায় দুই হাজার পরিবার পানিবন্দি রয়েছে। এছাড়া এক নম্বর ওয়ার্ড অন্যান্য ওয়ার্ডের চেয়ে নিচু। ফলে পানি উঠেছে। চরের অধিকাংশ বাড়ির পাশে পানি এসেছে। কিছু কিছু বাড়ি ডুবেও গেছে। এ কারণেই বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দিয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হামিদুল ইসলাম বলেন, ইতোমধ্যে চর এলাকা পরিদর্শন করে কিছু দুস্থদের ত্রাণ হিসেবে সহযোগিতা করা হয়েছে। তবে বন্যা হলে কিছুটা বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দেয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ