বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বেই টাইব্রেকার!

আপডেট: ডিসেম্বর ৯, ২০১৬, ১১:৪৬ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


১৬ গ্রুপের নতুন প্রস্তাবিত ফিফা বিশ্বকাপে ১৯৮২ সালের মতো কোনও অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। আর এই সমস্যার একমাত্র সমাধান হিসেবে গ্রুপ পর্বে ড্র হলে টাইব্রেকারের প্রস্তাব করেছে ফিফার কর্মকর্তারা।
৩২ থেকে বাড়িয়ে ৪৮ দলের বিশ্বকাপ আয়োজনে ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর প্রস্তাবে বিভিন্ন দেশের ফেডারেশন ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে। যেখানে তিনটি করে দল নিয়ে খেলা হবে ১৬ গ্রুপে। কিন্তু এক্ষেত্রে একটি সমস্যার ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছে কর্মকর্তাদের। সেটা কী! গ্রুপ পর্ব তিন দলের হলে প্রত্যেক গ্রুপে ম্যাচ হবে দুইটি করে, সেক্ষেত্রে পরের পর্বে ওঠার জন্য শেষ ম্যাচে গিয়ে দুই দলই নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া করে ড্র করতে পারে। এই সমস্যার সমাধানও ভেবে রেখেছে নির্বাহী কর্মকর্তারা। দ্য টাইমস জানায়- এজন্য গ্রুপ পর্বের কোনও ম্যাচ ড্র হলে তার মীমাংসা হবে টাইব্রেকারে।
১৯৮২ সালের বিশ্বকাপে জার্মানি ও অস্ট্রিয়া তাদের শেষ ম্যাচ খেলেছিল নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া করে। আগের দিন নিজেদের শেষ গ্রুপ ম্যাচে চিলিকে হারিয়ে পরের পর্বে যাওয়ার অপেক্ষায় ছিল আলজেরিয়া। অন্যদিকে ছিটকে যাওয়ার শঙ্কায় ছিল প্রথম ম্যাচ হারা জার্মানি। কিন্তু তাদের শেষ ম্যাচটি পরদিন হওয়ার সুযোগ তারা নিয়েছিল ‘অন্য উপায়ে’। অস্ট্রিয়ার সঙ্গে একটি ‘সমঝোতা চুক্তি’ করেছিল জার্মানরা, যেখানে অস্ট্রিয়ানদের বিপক্ষে ম্যাচটি তারা জেতে ১-০ গোলে। সমান ৪ পয়েন্ট নিয়ে গোলব্যবধানে এগিয়ে থেকে আলজেরিয়াকে হটিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠে জার্মানি ও অস্ট্রিয়া। ওই কলঙ্কিত অধ্যায়ের পর ফিফা নিয়ম করে- গ্রুপের শেষ দুই ম্যাচ হবে একই সময়ে।
কিন্তু নতুন প্রস্তাবিত ৩ দলের গ্রুপে একই সঙ্গে শেষ দুই ম্যাচ হওয়ার কোনও সুযোগ নেই। ফলে ১৯৮২ সালের মতো কোনও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। আর এই সমস্যার একমাত্র সমাধান হিসেবে গ্রুপ পর্বে ড্র হলে টাইব্রেকারের প্রস্তাব করেছে ফিফার কর্মকর্তারা। অবশ্য টাইমস জানায় নতুন এ নিয়ম নিয়ে ভাবার জন্য এখনও ফিফার কাউন্সিলে প্রস্তাবটি পেশ করা হয়নি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ